শেখ জুয়েলের মানবিক উদ্যোগ : অসহায়, দু:স্থ্য ও করোনায় কর্মহীন মানুষকে খাদ্য ও ঈদ উপহার প্রদান, ঘরে ঘরে ঈদের খুশী ছড়াবেই

14

খুলনা অফিস ।।

খুলনা মহানগরীর অসহায়, দু:স্থ্য ও করোনায় কর্মহীন ১০সহস্রাধিক মানুষকে খাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার প্রদান করেছেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল।খুলনায় করোনা সংক্রমন বাড়তে থাকায় লকডাউনে অসহায় ও কর্মহীণ হয়ে পড়া দরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে কোরবানীর ঈদের উপহারসহ এ সহায়তা প্রদান করেছেন।ইতিমধ্যেই মহানগরীর ১৭টি ওয়ার্ডে প্রথম দফায় খাদ্য সহায়তা বিতরন শেষ করে দ্বিতীয় দফায ঈদ উপহার প্রদান করা হচ্ছে। ঈদের সময় এই উপহার পেয়ে অসহায়, দু:স্থ্য ও কর্মহীন এসব মানুষ তাদের আনন্দে ঈদ উদযাপন করতে পারবেন বলে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েলের একান্ত সচিব ড. সাইদুর রহমান জানান, খুলনায় করোনার সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় কয়েক দফা লকডাউন বাস্তবায়ন করা হয়েছে। যে কারনে মহানগরীর খেটে খাওয়া, দরিদ্র ও দৈনিক কর্মজীবি মানুষ কাজ হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়ে।এই অবস্থায় স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রথমে খাদ্য সহায়তা এবং পরে ঈদ উপহার প্রদান করছেন। নগরীর ১৬নম্বর ওয়ার্ড থেকে ৩১নম্বর পর্যন্ত মোট ১৭টি ওয়ার্ডের দলীয় নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় এসব খাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার বিতরন করা হয়েছে।এ বিতরন কাজে মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, দপ্তর সম্পাদক মুন্সি মো: মাহবুব আলম সোহাগসহ নেতৃবৃন্দ মনিটোরিং ও সহযোগীতা করেছেন।মাননীয় সংসদ সদস্যের একমাত্র প্রত্যাশা খুলনা মহানগরীর কোন মানুষ যেন খাদ্যের অভাবে না পড়ে এবং ঈদের আনন্দ ও খুশী থেকে বঞ্চিত না হয়। শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েলের নির্দেশনায় দলীয় নেতাকর্মীসহ আমরা দিনরাত কাজ করে সাধারন মানুষকে সহযোগীতা করে যাচ্ছি।

তিনি আরও জানান, শেখ জুয়েলের বরাদ্ধকৃত খাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার পাচ্ছেন ১৬নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,১৭নম্বর ওয়ার্ডে ৪২৫জন, ১৮নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন, ১৯নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন, ২০নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,২১নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,২২নম্বর ওয়ার্ডে ৩৯৫জন,২৩নম্বর ওয়ার্ডে ৩৯৫জন,২৪নম্বর ওয়ার্ডে ৪২৫জন, ২৫নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,২৬নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,২৭নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,২৮নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন, ২৯নম্বর ওয়ার্ডে ৩৭৫জন,৩০নম্বর ওয়ার্ডে ৪২৫জন এবং ৩১নম্বর ওয়ার্ডে ৪২৫জনসহ ১০সহস্রাধিক মানুষ। ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব খাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার বিতরন করা হচ্ছে।

শেখ জুয়েলের এ মানবিক কার্যক্রমের বিষয়ে মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা বলেন, মানুষের কল্যাণে কাজ করাই সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েলের ব্রত। তিনি সব সময়ই সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে কাজ করেন। তিনি তাঁর বাবা শহীদ শেখ আবু নাসের ও  চাচা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতই গরীব দুখী মানুষের সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছেন। সেজন্যেই তিনি মহামারী করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে খাদ্য সহায়তা করছেন। একই সাথে মানুষ যেন আনন্দ ও খুশীর সাথে ঈদ উদযাপন করতে পারে সেজন্য ঈদ উপহার প্রদান করছেন। এছাড়া শেখ জুয়েল ও তার সহোদর শেখ সোহেল যৌথভাবে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেন সরবরাহ এবং এ্যাম্বুলেন্স সেবা দিচ্ছেন। এই সেবা কোন স্বার্থে নয়, এই সেবা শুধুই মানবিক দায়িত্ব হিসেবে করছেন সেখ জুয়েল। তাঁর এই মানবিক কাজকে সহযোগিতা করতে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

সোমবার ও মঙ্গলবার নগরীর ২১, ২২, ২৩, ২৪, ২৯, ৩০ ও ৩১নং ওয়ার্ডে খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ উদ্দিন জুয়েলের করোনা কালীন কর্মহীন মানুষের মাঝেখাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়। নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে এ বিতরণ অনুষ্ঠানে সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, ২২নং ওয়ার্ডের মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, ২৪নং ওয়ার্ডে মঈনুল ইসলাম নাসির,৩০নং ওয়ার্ডে এ্যাড. মো. ফারুক হোসেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ও প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, এসএম আকিল উদ্দিন, কাউন্সিল এসএম মোজাফফর রশিদী রেজা, মহানগর যুবলীগ আহবায়ক মো. সফিকুর রহমান পলাশ, শেখ মো. আবু হানিফ, চৌধুরী রায়হান ফরিদ, যুবলীগ নেতা শেখ শাহজালাল হোসেন সুজন, ছাত্রলীগ নেতা এসএম আসাদুজ্জামান রাসেল, আব্দুল হাই পলাশ, এমরানুল হক বাবু, ফয়েজুল ইসলাম টিটো, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, এ্যাড. শামীম মোশাররফ, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্যের এপিএস সাঈদুর রহমান, মাসুমুর রশীদ, অভিজিৎ চক্রবর্তী দেবু, মোল্লা ইখতিয়ার উদ্দিন, জহির আব্বাস, ওমর কামাল সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কোরবানী ঈদের আগে খাদ্য সহায়তা ও ঈদ উপহার পেয়ে নগরীর অসহায়, হতদরিদ্র ও র্মহীন সাধারন মানুষ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।নগরীর গগনবাবু রোড়ের মরিয়াম বেগম, শান্তিধাম এলাকার রাবেয়া খাতুন, ধর্মসভা এলাকার চিত্রা রানী, রেলওয়ে ষ্টেশন এলাকার ফরহাদ হোসেনসহ অনেকেই জানান, লকডাউনের কারনে তাদের হাতে কোন কাজ নেই। কোথাও বের না হতে পারায় ছেলেমেয়ে নিয়ে চরম অসহায় ও কষ্টের মধে আছেন। এমপির দেওয়া খাবার ও ঈদ উপহার পেয়ে তারা ছেলেমেয়েদের মুখে যেমন একটু খাবার দিতে পারবেন। তেমনি ঈদটাও ভালোভাবে কাটবে বলে আশা করেন তারা।##