ঢাকা ০৭:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যায় মৃত্যুদণ্ডের আসামি নলিনীসহ ৬ জনকে মুক্তির র্নিদেশ

###   ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডে দন্ডিত ৩৩ বছর কারাগারে থাকা নলিনী শ্রীহরণসহ ছয়জনকে মুক্তির আদেশ দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার এই আদেশ দেয়ার কথা জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী ১৯৯১ সালের ২১ মে দক্ষিণ ভারতে এক বোমা হামলায় নিহত হন। নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার সময় তার ওপর  তামিল গেরিলারা এই আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায়।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর প্রতিক্রিয়ায় নলিনীর ভাই বাকিয়ানাথন বলেছেন, তারা এরই মধ্যে ৩৩ বছর জেল খেটেছেন এবং যথেষ্ট যন্ত্রণা ভোগ করেছেন। মানবিক বিবেচনায় তাদের মুক্তি দেয়া হয়েছে। যারা তাদের মুক্তির বিরোধিতা করে তাদের ভারতের আইনকে সম্মান করা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সুপ্রিম কোর্টের মুক্তির নির্দেশ পাওয়া নলিনী ও তার স্বামী মুরুগান ছাড়া বাকিরা হলেন রবিচন্দ্রন, শান্থন, রবার্ট পায়াস এবং জয়কুমার। তাদের ওই মামলায় মৃত্যুদণ্ডের রায় হয়েছিল।

জানা গেছে, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী ১৯৯১ সালের ২১ মে দক্ষিণ ভারতে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার সময় বোমা হামলায় নিহত হন। শ্রীলঙ্কার বিদ্রোহী তামিল গোষ্ঠী এলটিটিইর সদস্য ধানু নামে এক নারী আত্মঘাতী জঙ্গি নিজেকে বোমার সঙ্গে উড়িয়ে দিয়েছিলেন। পরে সাতজনকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। আসামিরা প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানায়। সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে দেরি হওয়ায় ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টে মৃত্যুদণ্ড যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে বদলে যায়। সবশেষ গত জুনে মাদ্রাজ হাইকোর্ট নলিনীসহ অন্যদের ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানাতে পরামর্শ দেয়।

এরআগে গত মে মাসে এক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে মুক্তি দেয় সুপ্রিম কোর্ট। ##

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Banglar Dinkal

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যায় মৃত্যুদণ্ডের আসামি নলিনীসহ ৬ জনকে মুক্তির র্নিদেশ

প্রকাশিত সময় ১২:৪০:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ নভেম্বর ২০২২

###   ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডে দন্ডিত ৩৩ বছর কারাগারে থাকা নলিনী শ্রীহরণসহ ছয়জনকে মুক্তির আদেশ দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার এই আদেশ দেয়ার কথা জানিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী ১৯৯১ সালের ২১ মে দক্ষিণ ভারতে এক বোমা হামলায় নিহত হন। নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার সময় তার ওপর  তামিল গেরিলারা এই আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায়।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর প্রতিক্রিয়ায় নলিনীর ভাই বাকিয়ানাথন বলেছেন, তারা এরই মধ্যে ৩৩ বছর জেল খেটেছেন এবং যথেষ্ট যন্ত্রণা ভোগ করেছেন। মানবিক বিবেচনায় তাদের মুক্তি দেয়া হয়েছে। যারা তাদের মুক্তির বিরোধিতা করে তাদের ভারতের আইনকে সম্মান করা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সুপ্রিম কোর্টের মুক্তির নির্দেশ পাওয়া নলিনী ও তার স্বামী মুরুগান ছাড়া বাকিরা হলেন রবিচন্দ্রন, শান্থন, রবার্ট পায়াস এবং জয়কুমার। তাদের ওই মামলায় মৃত্যুদণ্ডের রায় হয়েছিল।

জানা গেছে, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী ১৯৯১ সালের ২১ মে দক্ষিণ ভারতে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার সময় বোমা হামলায় নিহত হন। শ্রীলঙ্কার বিদ্রোহী তামিল গোষ্ঠী এলটিটিইর সদস্য ধানু নামে এক নারী আত্মঘাতী জঙ্গি নিজেকে বোমার সঙ্গে উড়িয়ে দিয়েছিলেন। পরে সাতজনকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। আসামিরা প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানায়। সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে দেরি হওয়ায় ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টে মৃত্যুদণ্ড যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে বদলে যায়। সবশেষ গত জুনে মাদ্রাজ হাইকোর্ট নলিনীসহ অন্যদের ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানাতে পরামর্শ দেয়।

এরআগে গত মে মাসে এক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে মুক্তি দেয় সুপ্রিম কোর্ট। ##