ঢাকা ০৮:১৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষের মধ্যে ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির সাদৃশ্যে নানা উৎসবে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ : ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার

###   খুলনাস্থ ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার ইন্দ্রজিৎ সাগর বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সাদৃশ্য রয়েছে। উভয় দেশের মানুষ বহুযুগ ধরে নানা উৎসবে মিলে মিশে মেতে ওঠে এবং একে অপরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়। এটা এক অনন্য ভাতৃত্বের বন্ধন। যা চলে আসছে অনন্তকাল ধরে। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) নগরীর রূপসা মহাশ্মশান ও শ্মশান কালী মন্দিরে শারদীয় দুর্গোৎসবের মহালয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। এরআগে প্রদীপ প্রজ্জলন করে মহালয়া অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তিনি। মন্দির কমিটির সভাপতি বিজয় কুমার ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার নাথ।

অনুষ্ঠানে এস্টেট অব শ্রী সত্যনারায়ন মন্দিরের নির্বাহী ট্রাস্টি ও মহানগর পূজা পরিষদের সাবেক সভাপতি গোপী কিষাণ মুন্ধড়া, খুলনা মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার কুন্ডু, শ্রীশ্রী রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সভাপতি স্বামী ধর্মানন্দাজী মহারাজ, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি অরবিন্দ সাহা, সহ-সভাপতি অধ্যাপক তারক চাঁদ ঢালী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ^জিৎ দে মিঠু, সম্পাদক মÐলী সদস্য সাংবাদিক বিমল সাহা, সাংবাদিক প্রবীর বিশ্বাস, তাপস কুমার সাহা, সাধন কুমার ঘোষ, উজ্জল গাঙ্গুলী, সুজিত কুমার মজুমদার, সুরেশ চক্রবর্তী, মন্দির কমিটির অশোক ঘোষ, দুলাল সরকার, সন্তোষ মজুমদার, স্বপন মন্ডল, জয় মন্ডল, নারায়ন দাস, সাধন রায়, পরিমল রায়, পরিমল দাস, তাপস তালুকদার, অনুপ সরকার, মহেশ চক্রবর্তী, সবিতা মজুমদার, সন্ধ্যা বিশ্বাস, নূপুর দাস, মুক্তি চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শ্রীশ্রী চন্ডিপাঠের মাধ্যমে দেবী দুর্গাকে মর্তে আহবান জানানো হয়। এরপর দেবী দুর্গার আগমনী সঙ্গীত, নৃত্যানুষ্ঠান ও মহালয়ার বিশেষ নৃত্য নাটিকা ‘মহিষাসুর মর্দিনী মা দুর্গা’, পিতৃ পুরুষদের আত্মার শান্তি কামনায় শ্রদ্ধাঞ্জলি ও পিতৃতর্পন অনুষ্ঠিত হয়। ##

Tag :
About Author Information

Banglar Dinkal

বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষের মধ্যে ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির সাদৃশ্যে নানা উৎসবে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ : ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার

প্রকাশিত সময় ০১:৫০:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

###   খুলনাস্থ ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার ইন্দ্রজিৎ সাগর বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সাদৃশ্য রয়েছে। উভয় দেশের মানুষ বহুযুগ ধরে নানা উৎসবে মিলে মিশে মেতে ওঠে এবং একে অপরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়। এটা এক অনন্য ভাতৃত্বের বন্ধন। যা চলে আসছে অনন্তকাল ধরে। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) নগরীর রূপসা মহাশ্মশান ও শ্মশান কালী মন্দিরে শারদীয় দুর্গোৎসবের মহালয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। এরআগে প্রদীপ প্রজ্জলন করে মহালয়া অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তিনি। মন্দির কমিটির সভাপতি বিজয় কুমার ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার নাথ।

অনুষ্ঠানে এস্টেট অব শ্রী সত্যনারায়ন মন্দিরের নির্বাহী ট্রাস্টি ও মহানগর পূজা পরিষদের সাবেক সভাপতি গোপী কিষাণ মুন্ধড়া, খুলনা মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার কুন্ডু, শ্রীশ্রী রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সভাপতি স্বামী ধর্মানন্দাজী মহারাজ, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি অরবিন্দ সাহা, সহ-সভাপতি অধ্যাপক তারক চাঁদ ঢালী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ^জিৎ দে মিঠু, সম্পাদক মÐলী সদস্য সাংবাদিক বিমল সাহা, সাংবাদিক প্রবীর বিশ্বাস, তাপস কুমার সাহা, সাধন কুমার ঘোষ, উজ্জল গাঙ্গুলী, সুজিত কুমার মজুমদার, সুরেশ চক্রবর্তী, মন্দির কমিটির অশোক ঘোষ, দুলাল সরকার, সন্তোষ মজুমদার, স্বপন মন্ডল, জয় মন্ডল, নারায়ন দাস, সাধন রায়, পরিমল রায়, পরিমল দাস, তাপস তালুকদার, অনুপ সরকার, মহেশ চক্রবর্তী, সবিতা মজুমদার, সন্ধ্যা বিশ্বাস, নূপুর দাস, মুক্তি চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শ্রীশ্রী চন্ডিপাঠের মাধ্যমে দেবী দুর্গাকে মর্তে আহবান জানানো হয়। এরপর দেবী দুর্গার আগমনী সঙ্গীত, নৃত্যানুষ্ঠান ও মহালয়ার বিশেষ নৃত্য নাটিকা ‘মহিষাসুর মর্দিনী মা দুর্গা’, পিতৃ পুরুষদের আত্মার শান্তি কামনায় শ্রদ্ধাঞ্জলি ও পিতৃতর্পন অনুষ্ঠিত হয়। ##