খুলনায় করোনার কারনে শিশু স্বাস্থ্য সুরক্ষা চ্যালেঞ্জের মুখে

51

খুলনা ব্যুরো।।

করোনা মহামারির কারনে খুলনাঞ্চলে শিশু স্বাস্থ্য সুরক্ষা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে।করোনা আক্রান্তের ভয়ে অনেক মা তাদের শিশুকে টিকাদান কেন্দ্রে ও শিশু সুরক্ষা কেন্দ্রগুরোতে আনতে অনিহা প্রকাশ করছেন।ফলে শিশুদের স্বাস্থ্য পরিচর্যার জন্য সরকারের গৃহীত র্কাযক্রম ও প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়ন দুরূহ হয়ে পড়ছে। তদুপোরি র্ঘুনিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসে খুলনাসহ উপকুলীয় অনেক এলাকায় বাঁধ ভেঙ্গে মানুষ ঘরবাড়ি হারা হয়ে বাঁধে বসবাস করছে। অনেক স্থানে পানিবন্দি মানুষের চরম র্দূভোগের সৃষ্টি হয়েছে। এই অবস্তায় সরকারের শিশুদের অপুষ্টি জনিত অন্ধত্ব র্নিমূল, অপুষ্টিজনিত শিশু মৃত্যু ও শিশুর রোগ প্রতিরোধ সক্ষমতা বৃদ্ধিতে চলমান ভিটামিন এ+ ক্যাম্পেইন সুষ্ঠ্রভাবে বাস্তবায়ন নিয়ে দুচিন্তায় পড়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। করোনার সাথে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় শতভাগ শিশুকে এ+ ক্যাপসুল সেবন নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছেন তারা। বৃহষ্পতিবার খুলনায় জাতীয় ভিটামিন এ+ ক্যাম্পেইন পক্ষ পালন উপলক্ষ্যে গনমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা জানান সিভিল র্সাজন ডা: নিয়াজ মোহাম্মদ। খুলনা মহানগরীল স্কুল হেল্থ ক্লিনিকের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় ডেপুটি সিভিল র্সাজন এসএম কামাল হোসেন, শিশু বিশেষজ্ঞ ডা: শারাফাত হোসাইন, প্রেসক্রাবের সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেন, তথ্য অফিসার আতিকুর রহমান, শেখ আব্দুল বাকী প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

মতবিনিময় সভায় জানানো হয়, আগামী ৫জুন থেকে ১৯জুন পর্যন্ত খুলনায় ইপিআই কেন্দ্রগুলোতে ভিটামিন এ+ ক্যাম্পেইন পালন করা হবে। এ সময়ে ৬মাস বয়স থেকে ৫বছর বয়সী সকল শিশুকে একটি করে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। একই সাথে প্রতিটি মাকে শিশু স্বাস্থ্য সুরক্ষায় করনীয় সর্ম্পকে পুষ্টি বিষয়ক তথ্য বিশেষ করে জন্মের পর একঘন্টার মধ্যে শিশুকে শাল দুধ খাওয়ানো, প্রথম ৬মাস বুকের দুধ খাওয়ানো এবং  তারপরে দুধের পাশাপাশি পরিমানমত সুষম খাবার দেওয়ার পর্রামশ প্রদান করা হবে।এ কর্মসূচীর আওতায় খুলনায়  ১‘হাজার ৬৪১টি কেন্দ্রের মাধ্যমে মোট ২’লাখ ৯২’হাজার ১৪১জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এ কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে জেলা ও মহানগরে ২’হাজার ২৫১জন সরকারী-বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী দায়িত্ব পালন করবেন।এছাড়া জেলার কারাগার, শিশু নিবাস, সুন্দরবনাঞ্চল এবং জলোচ্ছ্বাস উপদ্রুত ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এ ক্যাপসুল খাওয়ালে শিশুদের কোন মারিরিক সমস্যা হওয়ার সম্বাবনা নেই বলেও মতবিনিময় সভায় জানানো হয়।

সভায় ভিটামিন এ+ ক্যাম্পেইন নিয়ে কোন নেতিবাচক তথ্য ও বক্তব্য উপস্থাপন এবং প্যানিক সৃষ্টি করে এমন কোন ধরনের সংবাদ পরিবেশন না করার জন্য সিভিল র্সাজন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কমর্তারা গনমাধ্যম প্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানান। মতবিনিময় সবায় খুলনার প্রিন্ট ও ইলেকট্রোনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  ##

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here