সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
খুলনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবের ১০১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠান ০১জুলাই পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা পদ্মা সেতুতে হ-য-ব-র-ল অবস্থা : নাটবোল্ট খোলা যুবক বিএনপি কর্মী বাইজীদ আটক খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিটিজেন চার্টার এন্ড জিআরএস-১ শীর্ষক প্রশিক্ষণ টেকসই অর্থায়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদল নেত্রী রুমার বাড়িতে হামলা,  জেলা ছাত্রদলের নিন্দা  নগরীতে হিজড়া ও লিঙ্গ বৈচিত্রময় জনগোষ্টির বৈষম্য দুরীকরনে নেটওয়ার্কিং মিটিং অনুষ্ঠিত সিটি মেয়রের কাছে নাগরিক ফোরাম প্রস্তাবিত উন্নয়ন পরিকল্পনা উপস্থাপন ফকিরহাটে মাতৃত্বকালীন ভাতা গ্রহণকারী মায়েদের প্রশিক্ষণ ন্যাপ নেতা তপন রায় ছিলেন নির্মোহ, নির্লোভ, নিবেদিত প্রাণ

কয়রায় কৃষিচর্চা বৃদ্ধি ও মিষ্টি পানির জলাধার সৃষ্টিতে খাল পুনঃখননের ‍উদ্বোধন

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
  • ৯ পড়েছেন

কয়রা প্রতিনিধি।।

কয়রায় কৃষিচর্চা বৃদ্ধি ও মিষ্টি পানির জলাধার সৃষ্টিতে খাল পুনঃখননের ‍উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার(২১ জুন) সকালে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা লিডার্স-এর বাস্তবায়নে ব্রেড ফর দ্যা ওয়ার্ল্ড-এর আর্থিক সহযোগিতায় এবং খাল পুনঃখনন কমিটি ও ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের যৌথ উদ্যোগে গোলখালী গ্রামে খাল পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন করা হয়। দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়ন জলবায়ু সহনশীল ফোরামের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শাহ আলম গাজীর সভাপতিত্বে খাল পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কয়রা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কমলেশ সানা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান আবু সালাম খান, খাল পুনঃখনন কমিটির সভাপতি ও ১নং ওয়ার্ড এর ইউপি সদস্য রেজাউল করিম, প্রাক্তন চেয়ারম্যান মোঃ মনজুর আলম নান্নু, জলবায়ু সহনশীল দলের সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা বুলবুল তরফদার, তাসের আলী মোড়লসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও লিডার্স-এর প্রকল্প সমন্বয়কারী মোঃ শওকত হোসেন প্রমূখ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশ তথা এশিয়ার সর্ব দক্ষিণে অবস্থিত গোলখালী গ্রাম। এখানে খাল পুনঃখননের ফলে মিষ্টি পানির জলাধার সৃষ্টি হলে একই জমিতে বছরে তিনবার ফসল উৎপাদন করা সম্ভব হবে। যার বাজার মূল্য হবে ষাট হাজার টাকার উর্দ্ধে। পূর্বের ন্যায় গোয়াল ভরা গরু, গোলা ভরা ধান, পুকুর ভরা মাছ ফিরে আসবে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন লিডার্স-এর মাধ্যমে খাল পুনঃখনন কার্যক্রম যেটুকু করা সম্ভব হবে বাকি কাজ কয়রা উপজেলা প্রশাসন থেকে খননের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

খাল খননের উদ্যোক্তারা জানান, জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবে উপকূলের বিভিন্ন সংকট দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কৃষিতে এই সংকট আরও প্রকট। কৃষিতে সংকট কাটিয়ে উঠতে কৃষি চর্চা বৃদ্ধি ও মিষ্টি পানির জলাধার সৃষ্টি করে এক ফসলী জমিকে একাধিক ফসল চাষে উন্নীত করতে ও খরা মৌসুমের ফসল রক্ষায় খাল পুনঃখনন করা হচ্ছে। ফলে কৃষকরা খালের দুই পাশের প্রায় একশত একর জমি একাধীক ফসলের আওতায় আসবে। এছাড়াও খালের বাঁধে সবজি চাষ এবং দেশীয় মাছের অভায়রণ্য তৈরি হবে। এভাবে কৃষককে কৃষি কাজে উদ্বুদ্ধ করতে পারলে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীলতা কমবে এবং কর্মক্ষেত্র বাড়বে। ফলে খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকি কমবে।##

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu