মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১০:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
তেরখাদায় অস্ত্রসহ একাধিক মামলার আসামি আটক তেরখাদায় নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন জাতীয় শোক দিবসের বিশেষ নিবন্ধ : ১৫ আগষ্ট বাঙালি জাতির একটি কলঙ্কিত ইতিহাস যশোরে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সাভারে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা, হত্যার চেষ্টা শোকাবহ আগস্টে অপশক্তি ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান : এমপি সালাম মূর্শেদী জাতীয় শোক দিবসে বিশেষ প্রতিবেদন : সেই শিশু আজ জগৎ জোড়া কয়রার দক্ষিণ বেদকাশীর রিংবাঁধ ভেঙ্গে এলাকা প্লাবিত, দূর্ভোগে হাজারো মানুষ ভেড়ামারায় তেল পাম্পে ট্যাংকি বিস্ফোরণে নিহত-২, আহত-৪ শিক্ষা কারিকুলায় আঞ্চলিক সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন : উপাচার্য

খুলনার টুটপাড়া থেকে বিপুল পরিমান মাদক,১টি পিস্তল,১৩ রাউন্ড গুলি,১৭ রাউন্ড শর্টগানের গুলিসহ আটক ৩

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল, ২০১৯
  • ৬৭৩ পড়েছেন
নিজস্ব প্রতিবেদক :
র‌্যাবসহ বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী দেশব্যাপী মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করছেন। পাশাপাশি অভিযানে রয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গঠিত টাস্ক ফোর্স। এরই ধারাবাহিকতায় খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত টাস্ক ফোর্স মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে (২ এপ্রিল) নগরীর দারোগাপাড়া ও মরিয়ম পাড়ায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ১১৩ বোতল ফেনসিডিল, বিদেশী মদ, বিয়ার, একটি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন, রিভলবারে ১৩ পিস গুলি ও শর্টগানের ১৭পিস গুলি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া অভিযানের সময় মাদক বিক্রির ১১ হাজার ৫শ’ টাকা ও মাদক ব্যবসায় ব্যবহৃত মটরসাইকেল আর ওয়ান মটরসাইকেল জব্দ করা হয়।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয় এর উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যার ৬ টার দিকে নগরীর দারোগাপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ওই এলাকায় বাসিন্দা মৃৃত সৈয়দ আলীর পুত্র হামিদ স্টোরের দোকানে মালিক আঃ হামিদকে ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করা হয়। আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী হামিদ মুদিদোকানের আড়ালে ফেনসিডিল বিক্রি করে আসছিলেন। এরপর ৫৮নং খানজাহান আলী রোডে মরিয়ম পাড়ায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ওই এলাকার বাসিন্দা এ্যানোটনি সরকারের স্ত্রী মনিকা সরকার ও তার ছেলে রূপক সরকারকে ৬৩ বোতল ফেনসিডিল, একটি বিদেশী মদ, বিয়ার, একটি পিস্তল, দুটি ম্যাগজিন, রিভলবারের ১৩ পিস ও সর্টগানের ১৭পিস গুলি উদ্ধার করা হয়।
উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান বলেন, বিভিন্ন অভিযানের সময় মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অবৈধ অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হচ্ছে। এ থেকে বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে ওঠে মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক বিক্রেতার পাশাপাশি অবৈধ অস্ত্র ব্যবহার করছেন। আটক মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকের আইনের মামলা দায়ের করা হবে।
অভিযানে পরবর্তীতে এক প্রেসবিফিংএ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, বর্তমান সরকার মাদকবিরোধী অভিযান জোরদার করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসকের যৌথভাবে গঠিত মাদক বিরোধী টাস্ক ফোর্স এর একটি টিম অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মাদকের চালান ও পৃষ্টপোষকতা সাথে যারাই জড়িত থাকবেন কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।
আটক মাদক ব্যবসায়ী রূপক সরকার প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, যশোরে কসমেটিক ব্যবসায়ী আয়েশা নামে এক পাইকারি ফেনসিডিল বিক্রেতাদের কাছ থেকে এই ফেনসিডিল চালানটি খুলনায় আনা হয়েছে। মরিয়ম পাড়া এলাকার বাসিন্দা জানান, হিমো নামে জনৈক এক ব্যক্তি এই এলাকায় মাদকের নেটওয়ার্কের সাথে জড়িত রয়েছে। সে এই এলাকায় তার সহযোগিদের দিয়ে ফেনসিডিল, ইয়াবাসহ নানা ব্যবসার পরিচালনা করে আসছেন। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাকি দিয়ে জনৈক হিমু তার সহযোগিদের মাধ্যমে মাদকের ব্যবসার পরিচালনা করে আসছেন।
অভিযানের সময় খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিঃ পরিচালক আবুল হোসেন, উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান, খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ এহশান শাহ, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইমরান খান, খুলনা সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি সহকারি পরিচালক শিরিন আক্তার, গোয়েন্দা শাখার পরিদর্শক পারভীন আক্তার, ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক মোহাম্মদ হাওলাদার সিরাজুল ইসলাম, ‘খ’ সার্কেলের পরিদর্শক মোঃ সাইফুর রহমান রানাসহ গঠিত ট্যাস্ক ফোর্সের বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu