ঢাকা ০৬:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাত্র-শিক্ষকের সম্পর্ক বৃদ্ধি করতে হবে : ড. সৌমিত্র শেখর

  • সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় ০৫:৫০:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ৭৮ পড়েছেন

মমিনুল ইসলাম, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেছেন, একাডেমিক সেশন শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা শিক্ষা, গবেষণা ও উন্নয়ন-এ তিনটি ব্রতকে সামনে রেখে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার কাজ হাতে নিয়েছি। এখানে শিক্ষার কাজকর্ম যথাযথভাবে চলবে। ছাত্র-শিক্ষকের সম্পর্ক ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করতে হবে,তাদের যে রাজ্য এ রাজ্যকে সুবিস্তৃত করতে হবে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স কক্ষে ‘Enhancing Local Governance through Engaging Civil Society: Trends and Challenges in Practice’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগ সেমিনারটি আয়োজন করে।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেমিনারে অংশগ্রহণের গুরুত্ব তুলে ধরে উপাচার্য বলেন, আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয়ের যে যোগাযোগ সেটা আমাদের আরও বাড়াতে হবে। একারণে ছাত্রছাত্রীরা এ জাতীয় সেমিনারে যতবেশি উপস্থিত থাকবে, বিশেষ করে নির্দিষ্ট বিষয়ের যারা রিসোর্স পার্সন আছেন তাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়ে এ ধরনের সেমিনার যতবেশি আয়োজিত হবে আমরা মনে করি আমাদের যে উদ্দেশ্য সে লক্ষ্য পূরণে তাতে আমরা আরও বেশি এগিয়ে যাবো।

এলজিইউডি কার্নিভালের আয়োজনকে স্বাগত জানিয়ে অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেন, স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগ যে আয়োজনটা করছে সে আয়োজন এরপরে আরও তারা এগিয়ে নিয়ে যাবে। আসলে বিদ্যার বিভিন্ন রকমের শাখা প্রশাখা হয়েছে। এই শাখা প্রশাখাকে যতবেশি গুরুত্বদিয়ে এর গভীরে প্রবেশ করা যায় ততবেশি আমরা গভীরে প্রবেশ করতে পারবো।

স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. রাকিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রসাশন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মফিজুর রহমান। বক্তব্য দেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আহমেদুল বারী, রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীরসহ অন্যরা। সেমিনার শেষে বিকেলে বিভাগের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ, বিদায় সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

Tag :
About Author Information

বাংলার দিনকাল

Editor and publisher

ছাত্র-শিক্ষকের সম্পর্ক বৃদ্ধি করতে হবে : ড. সৌমিত্র শেখর

প্রকাশিত সময় ০৫:৫০:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

মমিনুল ইসলাম, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেছেন, একাডেমিক সেশন শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা শিক্ষা, গবেষণা ও উন্নয়ন-এ তিনটি ব্রতকে সামনে রেখে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার কাজ হাতে নিয়েছি। এখানে শিক্ষার কাজকর্ম যথাযথভাবে চলবে। ছাত্র-শিক্ষকের সম্পর্ক ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করতে হবে,তাদের যে রাজ্য এ রাজ্যকে সুবিস্তৃত করতে হবে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স কক্ষে ‘Enhancing Local Governance through Engaging Civil Society: Trends and Challenges in Practice’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগ সেমিনারটি আয়োজন করে।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেমিনারে অংশগ্রহণের গুরুত্ব তুলে ধরে উপাচার্য বলেন, আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয়ের যে যোগাযোগ সেটা আমাদের আরও বাড়াতে হবে। একারণে ছাত্রছাত্রীরা এ জাতীয় সেমিনারে যতবেশি উপস্থিত থাকবে, বিশেষ করে নির্দিষ্ট বিষয়ের যারা রিসোর্স পার্সন আছেন তাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়ে এ ধরনের সেমিনার যতবেশি আয়োজিত হবে আমরা মনে করি আমাদের যে উদ্দেশ্য সে লক্ষ্য পূরণে তাতে আমরা আরও বেশি এগিয়ে যাবো।

এলজিইউডি কার্নিভালের আয়োজনকে স্বাগত জানিয়ে অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেন, স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগ যে আয়োজনটা করছে সে আয়োজন এরপরে আরও তারা এগিয়ে নিয়ে যাবে। আসলে বিদ্যার বিভিন্ন রকমের শাখা প্রশাখা হয়েছে। এই শাখা প্রশাখাকে যতবেশি গুরুত্বদিয়ে এর গভীরে প্রবেশ করা যায় ততবেশি আমরা গভীরে প্রবেশ করতে পারবো।

স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. রাকিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রসাশন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মফিজুর রহমান। বক্তব্য দেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আহমেদুল বারী, রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীরসহ অন্যরা। সেমিনার শেষে বিকেলে বিভাগের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ, বিদায় সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।