শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে হেলমেটধারীরা সমাবেশে হামলা চালায় : বিএনপি নেতৃবৃন্দ খুলনায় দুইস্থানে আওয়ামীলীগ-বিএনপির সভা আহবান, পুলিশের নিষেধাজ্ঞা জারি খুলনা জেলা পরিষদের চিত্রাংকন প্রতিযোগীতার সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরন খুলনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবসে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বিএনপির কর্মীসভায় হামলা-ভাংচুর, শতাধিক নেতাকর্মী আহত তোরখাদায় যুবলীগের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন দাকোপে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে রাজাকার অতিথি, মুক্তিযোদ্ধাদের অনুষ্ঠান বর্জন দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার পৃষ্ঠপোষকদের ফাঁসি দিতে হবে আওয়ামীলীগ তেরখাদা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল প্লাস্টিক দূষণ রোধকল্পে টেকসই ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা অপরিহার্য : ড. মুহাম্মদ আলমগীর

রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলনে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সংহতি

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০১৯
  • ৪৮৭ পড়েছেন

খবর বিজ্ঞপ্তি :

রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল শ্রমিকদের ৯ দফা দাবীতে চলমান আন্দোলনে রাজপথ-রেলপথ অবরোধ কর্মসূচীর দ্বিতীয় দিনে আজ নতুন রাস্তার মোড়ে পাটকল শ্রমিক লীগ ও সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্যজোট আয়োজিত সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের খুলনা জেলা কমিটির সমন্বয়ক ও ইউসিএলবি খুলনা জেলা শাখার সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কমরেড কাজী দেলোয়ার হোসেন। এ সময়ে নেতৃবৃন্দের আরও উপস্থিত ছিলেন সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড এস এ রশীদ, বাসদ খুলনা জেলা সমন্বয়ক কমরেড জনার্দন দত্ত নাণ্টু, বাসদ (মার্কসবাদী) খুলনা জেলা সদস্য কমরেড রুহুল আমিন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট খুলনা জেলার সাধারণ সম্পাদক কমরেড আব্দুল করিম, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র খুলনা জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক কমরেড এস এম চন্দন প্রমুখ।

কমরেড কাজী দেলোয়ার হোসেন তার সংহতি বক্তব্যে বলেন, শ্রমিকরা ৮ থেকে ১০ সপ্তাহ যাবত মজুরী পাচ্ছে না। ফলে পরিবার নিয়ে চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছে। ২০১৫ সালের জুলাই থেকে যে মজুরী কমিশন বাস্তবায়ন হওয়ার কথা তার এখনও কোনো নিশানা নেই। অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের পিএফ, গ্রাচুইটি ও নিহত শ্রমিকদের পাওনা এখনও বকেয়া। বদলী শ্রমিকরা পূর্ণমাত্রায় কাজ করলেও তাদের চাকরী স্থায়ী করা হচ্ছে না। মিলের লোকসানের দায় চাপানো হচ্ছে শ্রমিকদের উপর। অথচ সরকারের ভুলনীতির কারণে মিলে লোকসান হচ্ছে। মওসুমে পাট না কিনে দেরীতে কেনা, দুর্নীতিবাজ আমলা-কর্মকর্তাদের লুটপাট, পাটপণ্যের বহুমুখীকরণ না করা, যন্ত্রপাতির বিএমআরই না করা, নতুন বাজার অনুসন্ধান না করা ইত্যাদি কারণে মিলে লোকসান হচ্ছে। তিনি বলেন, এ আন্দোলন শুধু খুলনা, যশোর, চট্টগ্রাম, রাজশাহী নয়, বাম গণতান্ত্রিক জোট সারা দেশেই আন্দোলনের সমর্থনে কর্মসূচি পালন করছে। দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকদের ঘরে ফেরার উপায় নেই।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu