লাইব্রেরীর মাধ্যমে একটি গ্রাম কিংবা, বৃহৎ একটি এলাকা বদলে দেওয়া যায়; ডিআইজি মুহিদ

0
28

তৃপ্তি রঞ্জন সেন পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ
খুলনা রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি ড. খন্দকার মুহিদ উদ্দিন বিপিএম (বার) বলেছেন, লাইব্রেরীর মাধ্যমে একটি গ্রাম কিংবা বৃহৎ একটি এলাকা বদলে দেওয়া যায়, অনির্বাণ লাইব্রেরী তার অনন্য উদাহরণ। তিনি এই লাইব্রেরীর কার্যক্রম মাহমুদকাটির মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য আহবান জানান।

তিনি বলেন, লাইব্রেরী হচ্ছে বিশুদ্ধ ও মহৎ একটি প্রতিষ্ঠান। লাইব্রেরীর মাধ্যমে সমাজে তৈরী হয় আলোকিত মানুষ। প্রতিষ্ঠিত হয় মানবাধিকার। শুক্রবার সকালে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার মাহমুদকাটিতে ঐতিহ্যবাহী অনির্বাণ লাইব্রেরী আয়োজিত শিক্ষক সম্মাননা ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। ডিআইজি বলেন, দেশে এখনও ভাল মানুষের অস্তিত্ব রয়েছে। যারা আমাদের অনুপ্রেরণা। ছোট ছোট সক্ষমতা কিংবা সমাজের একজন মানুষও অনেক কিছু বদলে দিতে পারে। তিনি তরুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার জন্য লাইব্রেরী মুখি হওয়ার অনুরোধ করেন। যে শিক্ষা দেশ সহ সারা বিশ্ব উপকৃত হয় এমন শিক্ষা গ্রহণের জন্য বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের আহবান জানান। তিনি পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রভুত্ব নয়, সাধারণ মানুষের জন্য সেবক হয়ে কাজ করুন। পুলিশ মানুষের বেদনার কারণ উল্লেখ করে তিনি সাধারণ মানুষের সাথে অবিশ্বাস ও দূরত্ব কমিয়ে আনার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন। সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, পুলিশ সম্পর্কে পূর্বের ধারণা বদলে ফেলুন। পুলিশকে ভয় করবেন না। যেকোন প্রয়োজনে পুলিশের সহযোগিতা নিন। পুলিশের সেবার ধরণ অনেক বদলে গেছে। আগামীতে পুলিশ হবে জনগণের প্রকৃত বন্ধু। সে দিন হয়ত আর বেশি দূরে নয়। তিনি ১৮ বছরের আগে স্কুল পড়–য়া ছেলে-মেয়েদের হাতে স্মার্টফোন না দিতে অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান। দরজা বন্ধ করে ছেলে-মেয়েরা স্মার্টফোনের মাধ্যমে সাইবার ক্রাইমে যাতে জড়িয়ে না পড়ে এজন্য অভিভাবকদের সতর্ক থাকারও পরামর্শ দেন। অনির্বাণ লাইব্রেরীর সভাপতি সমীরণ দে’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে হরিঢালী ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক মোহন লাল দত্ত ও সাতক্ষীরা ও খুলনা অঞ্চলের ৩০জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সম্মাননা ও বৃত্তি প্রদান করা হয়।

সিনিয়র সাংবাদিক নিখিল ভদ্রের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, লাইব্রেরীর প্রতিষ্ঠাতা ও সিলেট রেঞ্জ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্র, ভারতের যিশু রাজা, ইংল্যান্ড প্রবাসী মহিউদ্দীন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরিচালক হায়াতুজ্জামান মুকুল, ব্রিগেডার জেনারেল মিজান, পেট্রকম’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক পার্থ, এপিএস গ্রূপের পরিচালক হাসিব, মোশাররফ হোসেন বাবু। উপস্থিত ছিলেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক আনোয়ার ইকবাল মন্টু ও আনন্দ মোহন বিশ্বাস, ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়াদ্দার, অধ্যক্ষ হরেকৃষ্ণ দাশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here