মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বিশেষ নিবন্ধ : শ্রাবনের চরিত্রহনণ বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠার পেছনের অনুপ্রেরণা বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বাংলাদেশ-ভারত আমদানি-রফতানি চুক্তির প্রথম ট্রায়ালের পণ্য মোংলায় খালাস : মেঘালয় ও আসামের উদ্দেশ্যে যাত্রা নির্বাচন আসলেই এদেশের কিছু ধান্দাবাজ একত্রিত হয় : তালুকদার খালেক দেশে রিজার্ভ নেই-একদিন দেখবেন শেখ হাসিনাও মসনদে নেই : বিএনপি বঙ্গমাতার গুণাবলী ধারণ করে মেয়েদের এগিয়ে যেতে হবে : খুবি উপাচার্য বঙ্গবন্ধুর বাঙালির মুক্তির মহানায়ক হয়ে ওঠার পেছনে প্রেরণা ছিলেন  বঙ্গমাতা : সিটি মেয়র বঙ্গবন্ধু ছিলেন জাতির কান্ডারি ও রাজনীতির কবি : এসডিএফ চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ বাংলাদেশ-ভারত ট্রানজিট চুক্তি বাস্তবায়নে ভারতের ট্রায়াল জাহাজ মোংলা বন্দরে’ খুলনায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকীতে দু:স্থ্যদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন

জনউদ্যোগে মহানগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে মশা নিধনের দাবিতে মানব বন্ধন

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় সোমবার, ১৮ মার্চ, ২০১৯
  • ৮৭৭ পড়েছেন

খবর বিজ্ঞপ্তি :

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগ, খুলনার আহবানে নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে খুলনা মহানগরীতে মাত্রাতিরিক্ত মশার যন্ত্রনা থেকে রেহাই পেতে মশা নিধনের জন্য দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন নাগরিক নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘দীর্ঘদিন সিটি কর্পোরেশনের মশা নিধন কার্যক্রম এলাকায় না থাকায় দিন দিন মশা এতোটাই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছে যে, ঘরোয়াভাবে তাদের দমানোর কোনো ফর্মুলাই কাজে আসছে না। নগরবাসী অসহায়ের মতো মশাদের খাবারে পরিণত হচ্ছে। নগরীর ড্রেনগুলো পলিথিনে আটকে রয়েছে। ড্রেনগুলো একদিকে সচল করতে চেষ্ঠা করছে কেসিসি, অন্যদিকে আবারো আবর্জনা ফেলার জায়গা না পেয়ে রাত্রের অন্ধকারে ড্রেনে ফেলছে আবর্জনা। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে চায় নগরবাসী। কেসিসিকে এই আবর্জনা ফেলার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখতে হবে। খাবার পর প্যাকেট ফেলার জন্য নগরজুড়ে জুড়ে রাখতে হবে ব্যবস্থা। মশা নিধনের জন্য নিতে হবে দ্রুত ব্যবস্থা।’

মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন জনউদ্যোগ, খুলনার সদস্য সচিব সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খুলনা নাগরিক সমাজের আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা আফম মহসীন, বাংলাদেশ বাস্তবায়ন কমিটির সমন্বয়কারী এ্যাডঃ মোমিনুল ইসলাম, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির মহানগর কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব এস এম সোহরাব, রূপসা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক হিরন্ময় মন্ডল, সেফের সমন্বয়কারী মোঃ আসাদুজ্জামান, বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসীর সভাপতি ডাঃ মোঃ নাসির, সহ-সভাপতি ডাঃ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, আলহাজ্ব ইমতিয়াজ শেখ, সোনালী দিন প্রতিবন্ধী সংস্থার ইসরাত আরা হীরা, নান্দিক একাডেমীর পরিচালক জেসমিন জামান, ছায়বৃক্ষের নির্বাহী পরিচালক মাহাবুব আলম বাদশা, শেখ আব্দুল হালিম, শেখ আইনুল হক, কবি স ম হাফিজুল ইসলাম, জি এম রাসেল, শেখ নুর আলম মিঠু, নিসচার এম মোস্তফা কামাল, শেখ ফারুক, জুবাইয়া নওশিন প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন আফজাল হোসেন রাজু।

মানব বন্ধনে বক্তারা বলেন, বাসা বাড়িতে মশা তাড়াতে যে সব স্প্রে,কয়েল,ইলেকট্রিক লিকুইড ডিভাইস ব্যবহার করা হচ্ছে তাতে মশা তো যাচ্ছেই না বরং মানুষ নানান রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। তাই স্বাভাবিক নাগরিক জীবন নিশ্চিত করতে কেসিসি মেয়রের কাছে মশা নিধনে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহনের জোর দাবি করেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu