বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট জুনে চালু হবে  : হাইকমিশনার প্রনয় ভার্মা অবৈধ সংসদ বাতিল,তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন এবং নতুন নির্বাচন কমিশন করতে হবে : গয়েশ্বর রায় খুলনার কেন্দ্রীয় আর্য ধর্মসভা মন্দির কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মহানগরীর লবনচরা থেকে ০৬টি ককটেলসহ গ্রেফতার-১ গঙ্গা বিলাস ভারত-বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও ইকোট্যুরিজমের সম্ভাবনা উন্মোচন করবে -হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট জুনে চালু হবে : ভারতীয় হাইকমিশনার প্রনয় ভার্মা  অবৈধ সংসদ বাতিল,তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন এবং নতুন নির্বাচন কমিশন করতে হবে : গয়েশ্বর রায় দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরণ বাগেরহাটে অবৈধভাবে মজুদ করা ২০ হাজার মেট্রিক টন চাল জব্দ,  গুদাম সিলগালা-জরিমানা কয়রায় হরিণ ধরার ফাঁদসহ ১টি নৌকা আটক

কয়রায় অগ্নিকাণ্ডে ৬ ঘর ভস্মীভূত, ত্রাণ ও অর্থ সহায়তা প্রদান

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯
  • ৪৯০ পড়েছেন

ওবায়দুল কবির (সম্রাট) কয়রা : কয়রা উপজেলার ২নং বাগালী ইউনিয়নের শরিষা মুট গ্রামের বাসিন্দা লুৎফর মোড়ল -পিতা নরিম মোড় এর বাড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

২৫ মে শনিবার আনুমানিক বেলা ১১টায় এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। উক্ত অগ্নিকাণ্ডে ৩ টি পরিবারের ৬ টি ঘর ভুম্মীভূত হয়েছে । অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন, লুৎফর মোড়ল (পিতা) নরিম মোড়ল , জালাল মোড়ল (পিতা)মৃত আবুল হোসেন , শফি মোড়ল (পিতা) নরিম মোড়ল। অগ্নিকান্ডে বসতি ঘর ও ঘরের সমস্ত আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ৪ লক্ষ টাকার মত ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, লুৎফরের বাড়িতে হঠাৎ করে বিকট শব্দ হয়। এলাকার মানুষ ছুটে এসে দেখে আগুন দাউ দাউ করে জ্বলছে। এলাকার মানুষ পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের আনান চেষ্টা চালান। কিন্তু তার মধ্যেই ৬টি ঘর পুড়ে ভস্মীভূত হয়।

এই ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য পংকোজ কুমার সানা বলেন, আমি খবর পেয়ে ঘটনা স্থানে আসি প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের কারণে আগুনের সূর্ত্রপাত ঘটে।

উক্ত ঘটনা তাৎক্ষণিক সরেজমিনে পরিদর্শন করেন নবনির্বাচিত কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল কুমার সাহা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ জাফর রানা।

উপজেলা চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন, হঠাৎ করেই আগুন লাগার খবর পাওয়ায়। ঘটনা স্থলে তাৎক্ষনিক পৌছাই দেখি আগুন লেগে ৩ টি পরিবার তাদের সব হারিয়েছে। খোলা আকাশ ও পরনের কাপড় ছাড়া কোন কিছুই নেই। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান ক্ষতিগ্রস্তদের সমবেদনা জানান। কয়রা উপজেলা পরিষদ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের সকল সাহায্য ও সহযোগিতা করার পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের অসহায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

পরে বিকাল ৫ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে অর্থ ও ঢেউটিন সাহায্য প্রদান করা হয়। ক্ষতিগ্রস্ত ৩টি পরিবারকে ৫০০০টাকা করে চেক ও ৩বান্ড ঢেউটিন ও ১টি করে কম্বল প্রদান করা হয়। ক্ষতিগ্রস্থদের হাতে সাহায্য তুলে দেন কয়রা উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল কুমার সাহা ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ জাফর রানা।

এসময় স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা, এলাকাবাসী, সুশীল সমাজ ও সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)
Hwowlljksf788wf-Iu