শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে হেলমেটধারীরা সমাবেশে হামলা চালায় : বিএনপি নেতৃবৃন্দ খুলনায় দুইস্থানে আওয়ামীলীগ-বিএনপির সভা আহবান, পুলিশের নিষেধাজ্ঞা জারি খুলনা জেলা পরিষদের চিত্রাংকন প্রতিযোগীতার সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরন খুলনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবসে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বিএনপির কর্মীসভায় হামলা-ভাংচুর, শতাধিক নেতাকর্মী আহত তোরখাদায় যুবলীগের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন দাকোপে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে রাজাকার অতিথি, মুক্তিযোদ্ধাদের অনুষ্ঠান বর্জন দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার পৃষ্ঠপোষকদের ফাঁসি দিতে হবে আওয়ামীলীগ তেরখাদা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল প্লাস্টিক দূষণ রোধকল্পে টেকসই ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা অপরিহার্য : ড. মুহাম্মদ আলমগীর

সমালোচনা পথচলাকে সহায়তা করে — তথ্যমন্ত্রী

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯
  • ৩০৬ পড়েছেন

তথ্যবিবরণী :

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘সমালোচনা পথচলাকে সহায়তা করে। দায়িত্বে থাকাকালে পৃথিবীর কোনো সরকার পৃথিবীর কোনো ইতিহাসে শতভাগ নির্ভুল কাজ করতে পারেনি। ভবিষ্যতেও কোনো সরকার শতভাগ নির্ভুল কাজ করতে পারবে না। এই ভুলত্রুটি উপস্থাপন করা কিন্তু সাংবাদিকদের দায়িত্ব। সমালোচনাকে সমাদৃত করার মাধ্যমে এবং যুক্তি-তর্কের মাধ্যমে সরকারের সমালোচনা করলে গণতন্ত্র সংহত হয়, দেশ এগিয়ে যায়, আমরা সেটি বিশ্বাস করি’।

আজ রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বার্তা সংস্থা ইউএনবি’র বার্তা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান প্রণীত ‘সাংবাদিকতা রাত-বিরাতে’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ড. হাছান এ সময় গ্রন্থলেখক মাহফুজুর রহমানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘তিনি সাংবাদিকদের নিয়ে যে বইটি লিখেছেন, সেটি শুধু সাংবাদিকদের নয়, সবার জন্যই প্রযোজ্য। বইটি একটি দলিল হয়ে থাকবে। লেখার মাধ্যমেই মানুষ বেঁচে থাকবে। যারা বরেণ্য ব্যক্তি, যারা কোনো কিছুই লেখেননি, তারা কিন্তু হারিয়ে গেছেন। যারা কিছু লিখে গেছেন, তারা লেখার মাধ্যমে বেঁচে আছেন। লেখা শুধু নিজেকে বাঁচিয়ে রাখার জন্যই নয়, লেখা সমাজকে, সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করার জন্য’।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক এমেরিটাস সাখাওয়াত আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য লেখক মোঃ নজরুল ইসলাম ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল ইসলাম। এছাড়া গ্রন্থপ্রণেতা মাহফুজুর রহমান তাঁর অনুভূতি প্রকাশ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu