শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
বিএনপিকে রাজপথে শক্ত হাতে মোকাবেলা করা হবে লেখাপড়ার সাথে খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক চর্চা একান্ত প্রয়োজন -সিটি মেয়র কলাপাড়ায় ২০ কেজি মাংসসহ দুই হরিন শিকারী আটক তেরখাদায় জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মফিজুর রহমানের শীতবস্ত্র বিতরণ শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান: তেরখাদায় এমপি আব্দুস সালাম মূর্শেদী মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক স্থাপনা নির্মাণে প্রধান শিক্ষকের চক্রান্ত ! চট্টগ্রামের হটহাজারীতে মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর মামলার আসামীর কারাগারে মৃত্যু পতাকাসহ পাকিস্তান দলকে দেশে ফেরত পাঠানো উচিত : তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ ভবদহের স্থায়ী জলাবদ্ধতা নিরসনে ভুক্তভোগীদের অবস্থান কর্মসূচি পালন করোনাকালীন এক লাখ ৩৫ হাজার শ্রমিককে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে শ্রম কল্যাণ কেন্দ্র

মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানীভাতা অনলাইনে প্রদান করা হবে -মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ৮ মে, ২০১৯
  • ৫২৩ পড়েছেন

তথ্যবিবরণী :
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানীভাতা সরাসরি নিজ নিজ ব্যাংক হিসেবে জমা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। তিনি বলেন, আগামী অর্থবছর থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল কার্ড প্রদান ও ইলেকট্রনিক (এ২চ) পদ্ধতিতে সম্মানী ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আজ পরিবহন পুল ভবনের নিকটস্থ সচিবালয় লিংকরোডে সেবা সপ্তাহ ২০১৯ এর উদ্বোধন উপলক্ষে র‌্যালিপূর্বক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারব্যবস্থাসহ সমগ্র দেশটিকে ডিজিটাল করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তারই অংশ হিসেবে মুক্তিযোদ্ধাদের সেবা সহজ ও ঝামেলামুক্তভাবে প্রদানের লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও অধীনস্থ সংস্থাগুলোর কার্যক্রমও পরিপূর্ণ ডিজিটাল পদ্ধতিতে করার লক্ষ্যে কাজ করছে মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রী জানান, আগামী ৮ মে থেকে ১৪ মে পর্যন্ত সেবাসপ্তাহ পালন করা হবে। মন্ত্রণালয় ও অধীনস্থ সকল দপ্তরের মাধ্যমে সেবা সপ্তাহে বিশেষ ব্যবস্থায় সেবা প্রদান করা হবে। সেবা প্রত্যাশীদের সহজ ও দ্রুততার সাথে সেবা প্রদান করা হবে। অতি দ্রুত মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সনদ ও পরিচয়পত্র প্রদান এবং বিনামূল্যে অসুস্থ চিকিৎসাসেবার ব্যবস্থা করছে সরকার। তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার মহান ব্রত নিয়ে কাজ করার লক্ষ্যে দল, মত, জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে একযোগে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

র‌্যালিটি সচিবালয় লিংকরোড থেকে শুরু হয়ে জিপিও মোড় হয়ে আবার মন্ত্রণালয়ের সামনে এসে সমাপ্ত হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মীগণ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)
Hwowlljksf788wf-Iu