ঢাকা ০৭:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভোটার তালিকা হালনাগাদ

তথ্যবিবরণী :

খুলনা সিটি কর্পোরেশনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি-২০১৯ উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সমন্বয় সভা ৩০ এপ্রিল (মঙ্গলবার) আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলীর সভাপতিত্বে তাঁর সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জানানো হয়, ২৩ এপ্রিল থেকে ১৩ মে পর্যন্ত দেশব্যাপী চলমান ভোটার তালিকা হালনাগাদের অংশ হিসেবে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন সদর, সোনাডাঙ্গা এবং দৌলতপুর থানার ভোটারদের তথ্য হালনাগাদের জন্য তথ্য সংগ্রহ চলছে। আগামী ১৬ মে থেকে শুরু হবে ভোটার রেজিস্ট্রেশন। ২০০৪ সালের ১ জানুয়ারি বা তার পূর্বে জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা এবার ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার সুযোগ পাবে। এবারই প্রথমবারের মতো ভোটার রেজিস্ট্রেশনের সময় ১০ আঙ্গুলের ছাপ এবং চোখের আইরিশের ছবি নেওয়া হবে যার ভিত্তিতে পরবর্তীতে সরাসরি স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহ করা হবে। সরকারের ৮০টি ডিপার্টমেন্ট এই তথ্য নিয়ে কাজ করবে। রাষ্ট্রীয় সকল কাজে এনআইডি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। চলমান এই ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে যথাযথ তথ্য দিয়ে তথ্য সংগ্রহকারীদের সহযোগিতা করার জন্য সিটি কর্পোরেশনের অধিবাসীদের প্রতি আহবান জানান আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা।

সভায় কেসিসির সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলরসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সভাটি সঞ্চালনা করেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম।

Tag :
About Author Information

বাংলার দিনকাল

Editor and publisher

ভোটার তালিকা হালনাগাদ

প্রকাশিত সময় ০৯:১৫:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল ২০১৯

তথ্যবিবরণী :

খুলনা সিটি কর্পোরেশনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি-২০১৯ উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সমন্বয় সভা ৩০ এপ্রিল (মঙ্গলবার) আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলীর সভাপতিত্বে তাঁর সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জানানো হয়, ২৩ এপ্রিল থেকে ১৩ মে পর্যন্ত দেশব্যাপী চলমান ভোটার তালিকা হালনাগাদের অংশ হিসেবে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন সদর, সোনাডাঙ্গা এবং দৌলতপুর থানার ভোটারদের তথ্য হালনাগাদের জন্য তথ্য সংগ্রহ চলছে। আগামী ১৬ মে থেকে শুরু হবে ভোটার রেজিস্ট্রেশন। ২০০৪ সালের ১ জানুয়ারি বা তার পূর্বে জন্মগ্রহণকারী ব্যক্তিরা এবার ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার সুযোগ পাবে। এবারই প্রথমবারের মতো ভোটার রেজিস্ট্রেশনের সময় ১০ আঙ্গুলের ছাপ এবং চোখের আইরিশের ছবি নেওয়া হবে যার ভিত্তিতে পরবর্তীতে সরাসরি স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহ করা হবে। সরকারের ৮০টি ডিপার্টমেন্ট এই তথ্য নিয়ে কাজ করবে। রাষ্ট্রীয় সকল কাজে এনআইডি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। চলমান এই ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে যথাযথ তথ্য দিয়ে তথ্য সংগ্রহকারীদের সহযোগিতা করার জন্য সিটি কর্পোরেশনের অধিবাসীদের প্রতি আহবান জানান আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা।

সভায় কেসিসির সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলরসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সভাটি সঞ্চালনা করেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম।