শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম
মোংলায় নাসা অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলনেতা সুমিতকে সংবর্ধনা আমাদের শিক্ষা ও সংস্কৃতির ঐতিহ্য অন্তর্ভুক্ত করেই কারিকুলা বিশ্বমানের করতে হবে : খুবি উপাচার্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্য সম্পাদিত গবেষণা গ্রন্থ প্রকাশ বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে : সিটি মেয়র খুলনায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি কুয়েটের বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রফেসর নিয়োগ পেলেন প্রফেসর ড. খুরশীদা বেগম রূপসায় বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে প্রধান শিক্ষককে ৩ ঘন্টা অবরুদ্ধ, মানববন্ধন এবং ভাঙচুর নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মানোন্নয়নে সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন : সিটি মেয়র চুকনগরে কথিত সাংবাদিক ও সহযোগীদের চাঁদা দাবী : যুবকের আত্মহত্যা সময়ের চাহিদা অনুযায়ী আইন শিক্ষায় প্রযুক্তির সংশ্লেষ ঘটাতে হবে : খুবি উপাচার্য

প্রতি বিভাগে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় হবে: প্রধানমন্ত্রী

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ৪৮৫ পড়েছেন

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: প্রতিটি বিভাগে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমরা ঢাকায় একটি ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি তৈরি করছি; সেটা বাস্তবায়নের পর পর্যায়ক্রমে বিভাগীয় শহরগুলোতে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি করবো।

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ডা. সমিরউদ্দিন আহমেদ শিমুলের এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকায় যে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি করছি, সেটা বাস্তবায়ন হলে সেখানে শিক্ষক নিয়োগের বিষয় আছে। সেটা করা হলে এরপর আমরা রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা ও সিলেটে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি করবো।

আওয়ামী লীগের সদস্য এবং সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যখন যে সরকার ক্ষমতায় এসেছে তখনই ভোলা থেকে মন্ত্রী হয়েছেন। সব সরকারের সময়ই ভোলায় উন্নয়ন হয়েছে। ওখানে তো জ্যাকব টাওয়ার হয়ে গেছে। ওই জ্যাকব টাওয়ার নিয়েই সন্তুষ্ট থাকা উচিত!

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য পীর ফজলুর রহমানের এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের উন্নয়ন পরিকল্পনায় কোনো জায়গা বাকি থাকে না। সকল জায়গায় উন্নয়ন করতে হবে, এটা আমাদের লক্ষ্য। আমরা প্রত্যেক জেলায় একটি করে আইটি পার্ক করে দিচ্ছি।

আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল মতিন খসরুর এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা শিক্ষানীতি প্রণয়ন করে তার ভিত্তিতে কার্যক্রম শুরু করেছি। শিক্ষার মানের বিষয়টা— সারা বিশ্বের দেশে দেশে শোনা যায়, শিক্ষার মান ভালো না। আসলে শিক্ষার মানের মাত্রাটা কী সেটা চিন্তা ভাবনা করে দেখতে হবে। শিক্ষার মান ধীরে ধীরে যাতে উন্নত হয়, সেই পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu