ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে বেতার সংলাপ

তথ্যবিবরণী :

নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকারের উদ্যোগের ওপর এক বেতার সংলাপ অনুষ্ঠান ২৮ মে (মঙ্গলবার) সকালে বাংলাদেশ বেতার খুলনার সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে খুলনা বেতার অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বিভাগীয় কমিশনার বলেন, অবর্ণনীয় কষ্ট সহ্য করে একজন মা তাঁর সন্তান জন্ম দেন। প্রতিবার গর্ভধারণে মায়ের জীবন ঝুঁকিতে পড়ে। মাতৃত্বকালীন মৃত্যু ঝুঁকি হ্রাস ও নিরাপদ প্রসব নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বাল্যবিবাহের ফলে অল্প বয়সের মেয়েরা গর্ভধারণ করলে তাদের জীবন বিপন্ন হতে পারে। তাই মেয়েদের ১৮ বছর বয়সের নীচে বিয়ে দেয়ার কুফল সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করতে হবে। গর্ভবতী নারীর জন্য পুষ্টিকর খাবারের ব্যবস্থা করলে আগত সন্তান সুস্থ ও সবল হবে। দক্ষ হাতে ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে সন্তান প্রসব করাতে সবাইকে উৎসাহ দেয়া প্রয়োজন। গর্ভবতী মাকে মানসিকভাবেও প্রাণবন্ত রাখা দরকার। উন্নত বিশ্বে সন্তান জন্মদানের ক্ষেত্রে সিজারিয়ানের হার অনেক কম। মায়ের জীবন সংকটাপন্ন না হলে অপ্রয়োজনীয় সিজারিয়ান অপারেশন নিরুৎসাহিত করতে হবে। নবজাতক সন্তানকে মায়ের শালদুধ পান করাতে হবে। শিশুকে সুস্থ-সবল রাখতে মায়ের দুধের কোন বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসেবে ছিলেন খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডাঃ রাশেদা সুলতানা ও গাইনি বিশেষজ্ঞ রওগন আরা। অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করেন বাংলাদেশ বেতার খুলনার আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ বশির উদ্দিন। অনুষ্ঠানে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আগত কিশোর-কিশোরী ও নারীরা অংশগ্রহণ করেন।

Tag :
About Author Information

বাংলার দিনকাল

Editor and publisher
জনপ্রিয় সংবাদ

খুবিতে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন

নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে বেতার সংলাপ

প্রকাশিত সময় ০৮:৪২:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০১৯

তথ্যবিবরণী :

নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকারের উদ্যোগের ওপর এক বেতার সংলাপ অনুষ্ঠান ২৮ মে (মঙ্গলবার) সকালে বাংলাদেশ বেতার খুলনার সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে খুলনা বেতার অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বিভাগীয় কমিশনার বলেন, অবর্ণনীয় কষ্ট সহ্য করে একজন মা তাঁর সন্তান জন্ম দেন। প্রতিবার গর্ভধারণে মায়ের জীবন ঝুঁকিতে পড়ে। মাতৃত্বকালীন মৃত্যু ঝুঁকি হ্রাস ও নিরাপদ প্রসব নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বাল্যবিবাহের ফলে অল্প বয়সের মেয়েরা গর্ভধারণ করলে তাদের জীবন বিপন্ন হতে পারে। তাই মেয়েদের ১৮ বছর বয়সের নীচে বিয়ে দেয়ার কুফল সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করতে হবে। গর্ভবতী নারীর জন্য পুষ্টিকর খাবারের ব্যবস্থা করলে আগত সন্তান সুস্থ ও সবল হবে। দক্ষ হাতে ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে সন্তান প্রসব করাতে সবাইকে উৎসাহ দেয়া প্রয়োজন। গর্ভবতী মাকে মানসিকভাবেও প্রাণবন্ত রাখা দরকার। উন্নত বিশ্বে সন্তান জন্মদানের ক্ষেত্রে সিজারিয়ানের হার অনেক কম। মায়ের জীবন সংকটাপন্ন না হলে অপ্রয়োজনীয় সিজারিয়ান অপারেশন নিরুৎসাহিত করতে হবে। নবজাতক সন্তানকে মায়ের শালদুধ পান করাতে হবে। শিশুকে সুস্থ-সবল রাখতে মায়ের দুধের কোন বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসেবে ছিলেন খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডাঃ রাশেদা সুলতানা ও গাইনি বিশেষজ্ঞ রওগন আরা। অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করেন বাংলাদেশ বেতার খুলনার আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ বশির উদ্দিন। অনুষ্ঠানে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আগত কিশোর-কিশোরী ও নারীরা অংশগ্রহণ করেন।