মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
তেরখাদায় অস্ত্রসহ একাধিক মামলার আসামি আটক তেরখাদায় নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন জাতীয় শোক দিবসের বিশেষ নিবন্ধ : ১৫ আগষ্ট বাঙালি জাতির একটি কলঙ্কিত ইতিহাস যশোরে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সাভারে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা, হত্যার চেষ্টা শোকাবহ আগস্টে অপশক্তি ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান : এমপি সালাম মূর্শেদী জাতীয় শোক দিবসে বিশেষ প্রতিবেদন : সেই শিশু আজ জগৎ জোড়া কয়রার দক্ষিণ বেদকাশীর রিংবাঁধ ভেঙ্গে এলাকা প্লাবিত, দূর্ভোগে হাজারো মানুষ ভেড়ামারায় তেল পাম্পে ট্যাংকি বিস্ফোরণে নিহত-২, আহত-৪ শিক্ষা কারিকুলায় আঞ্চলিক সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন : উপাচার্য

দাকোপে স্বামীর পিটুনিতে গৃহবধূ হাসপাতালে

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় শনিবার, ৬ এপ্রিল, ২০১৯
  • ৪১৭ পড়েছেন
Exif_JPEG_420

প্রতিনিধি, দাকোপ :
খুলনার দাকোপ উপজেলায় কাবিন নামার মুলকপি ও ২ লাখ টাকা চাইলে নাসিমা বেগম(৪৫) নামের এক গৃহবধূকে স্বামী ও পরিবারের লোকজন পিটিয়ে আহত করেছেন। এমন অভিযোগ উপজেলার উত্তর বানিশান্তা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল মজিদ শেখের দ্বিতীয় স্ত্রী নাসিমা বেগমের। গুরুতর অবস্থায় ওই গৃহবধূকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগির অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, প্রায় একবছর পূর্বে মজিদের সঙ্গে নাসিমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মজিদ তার সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য কারণে-অকারণে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে থাকে। শুক্রবার (৬ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাতটার দিকে মজিদ শেখের সঙ্গে দ্বিতীয় স্ত্রীর বিয়ের সকল নিবন্ধনপত্র, কাবিন নামার মূলকপি ও স্ত্রীর সঞ্চয় করা ২ লাখ টাকা নিয়ে বাড়িতে চলে যায় স্বামী। নাসিমা খবর পেয়ে স্বামীর বাড়িতে গিয়ে দেখে কাবিনের মূলকপি ও নগত টাকাসহ প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে রয়েছে মজিদ। তখনি নাসিমা স্ত্রীর মর্যাদা, কাবিন নামার কপি ও সঞ্চয়ের নগদ টাকা চাইলে স্বামী উত্তেজিত হয়ে তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

নাসিমার চিৎকারে মজিদের প্রথম স্ত্রীর ছেলে মো. ছগির শেখ ঘর থেকে বাহিরে এসে লোহার রড দিয়ে তার শরীরে আঘাত করলে রক্তাক্ত জখম হয়ে মাটিতে পড়ে যায়। প্রথম স্ত্রী শেফালী বেগমসহ তার অন্যান্য সন্তানরা নাসিমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে ক্ষত সৃষ্টি করে। এতে সে গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। এ ঘটনায় নাসিমা বেগম বাদী হয়ে প্রথম স্ত্রীর ছেলে ও স্বামীসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে দাকোপ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চালাছিল বলে জানা যায়।

থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোকাররম হোসেন খুলনাটাইমসকে বলেন, রাতের মারধরের একটি ঘটনায় আহতরা হাসপাতালে এসেছে শুনেছি। তবে পুলিশের কাছে লিখিত কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu