মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বিশেষ নিবন্ধ : শ্রাবনের চরিত্রহনণ বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠার পেছনের অনুপ্রেরণা বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বাংলাদেশ-ভারত আমদানি-রফতানি চুক্তির প্রথম ট্রায়ালের পণ্য মোংলায় খালাস : মেঘালয় ও আসামের উদ্দেশ্যে যাত্রা নির্বাচন আসলেই এদেশের কিছু ধান্দাবাজ একত্রিত হয় : তালুকদার খালেক দেশে রিজার্ভ নেই-একদিন দেখবেন শেখ হাসিনাও মসনদে নেই : বিএনপি বঙ্গমাতার গুণাবলী ধারণ করে মেয়েদের এগিয়ে যেতে হবে : খুবি উপাচার্য বঙ্গবন্ধুর বাঙালির মুক্তির মহানায়ক হয়ে ওঠার পেছনে প্রেরণা ছিলেন  বঙ্গমাতা : সিটি মেয়র বঙ্গবন্ধু ছিলেন জাতির কান্ডারি ও রাজনীতির কবি : এসডিএফ চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ বাংলাদেশ-ভারত ট্রানজিট চুক্তি বাস্তবায়নে ভারতের ট্রায়াল জাহাজ মোংলা বন্দরে’ খুলনায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকীতে দু:স্থ্যদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন

গণতন্ত্রহীনতা, লুটপাট ও শোষণের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান – সিপিবি’র ৭১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় বুধবার, ৬ মার্চ, ২০১৯
  • ৫১৬ পড়েছেন

খবর বিজ্ঞপ্তি :
বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পাটি (সিপিবি)’র ৭১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ খুলনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়।(৬ ফেব্রুয়ারি) বুধবার বিকেল ৫টায় নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়স্থ সিপিবি কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠানমালার শুরুতে কাস্তে হাতুড়ি খচিত লাল পতাকা সম্বলিত বেলুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠান শুরু করা হয়।

এ সময়ে পার্টির নেতাকর্মীরা পরস্পর ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় ও দলের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি প্রয়াত ও শহীদ কমরেডদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং সকলের অসীম ত্যাগের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। এরপর একই স্থানে সমাবেশ ও নগরীতে লাল পতাকার মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে দলের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি ডাঃ মনোজ দাশের সভাপতিত্বে ও দলের মহানগর সাধারণ সম্পাদক এড. মোঃ বাবুল হাওলাদারের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, অরুণা চৌধুরী, জেলা সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. এম এম রুহুল আমীন, মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, সিপিবি নেতা এ্যাড. চিত্তরঞ্জন গোলদার, মিজানুর রহমান বাবু, সুতপা বেদজ্ঞ, প্রকৌশলী সুখেন রায়, কিশোর রায়, অশোক সরকার, মন্মথ বিশ্বাস, সাইদুল ইসলাম, সমীরণ গোলদার, এ্যাড. নিত্যানন্দ ঢালী, নিতাই পাল, রুস্তম আলী হাওলাদার, তোফাজ্জেল হোসেন, দীন মোহাম্মদ, ফজলুল হক, এস এম বাবর আলী, শেখ আব্দুল হালিম, ওয়াহিদুর রেজা বিপলু, জাহানারা আক্তারী, ফরহাদ হোসেন মিটন, পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, জামাল হোসেন, মীর ওবায়দুর রহমান, ছাত্রনেতা উত্তম রায়, শেখ রবিউল ইসলাম রবি প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, ভারতবর্ষ, পাকিস্তান আমল এবং বাংলাদেশে কমিউনিস্ট পার্টি শোষণ-নিপীড়ন বিরোধী জনগণের স্বার্থ রক্ষায় এমন কোনো গণতান্ত্রিক সংগ্রাম নেই যেখানে প্রথম সারিতে থেকে সংগঠকের ভূমিকা পালন করেনি। কমিউনিস্ট পার্টি এ  ভূখন্ডে কেবলমাত্র ইতিহাসের অংশই নয়, কোনো কোনো ক্ষেত্রে ইতিহাসের স্রষ্টা। যে স্বপ্ন ধারণ ও লালন করে ৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল তা অধরাই থেকে গেছে। মুক্তিযোদ্ধাদের স্বপ্ন তথা শোষণ-বৈষম্যহীন-প্রগতিশীল-অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে হলে গণতন্ত্রহীনতা-শোষণ-লুটপাটের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। সেজন্য প্রয়োজন প্রকৃত অর্থে দেশপ্রেমিক, প্রতিশ্রুতিশীল, সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী, সৎ, আদর্শ নির্ভর রাজনৈতিক বলয়। নেতৃবৃন্দ সে লক্ষ্যে দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীকে সক্রিয় ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu