মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠার পেছনের অনুপ্রেরণা বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বাংলাদেশ-ভারত আমদানি-রফতানি চুক্তির প্রথম ট্রায়ালের পণ্য মোংলায় খালাস : মেঘালয় ও আসামের উদ্দেশ্যে যাত্রা নির্বাচন আসলেই এদেশের কিছু ধান্দাবাজ একত্রিত হয় : তালুকদার খালেক দেশে রিজার্ভ নেই-একদিন দেখবেন শেখ হাসিনাও মসনদে নেই : বিএনপি বঙ্গমাতার গুণাবলী ধারণ করে মেয়েদের এগিয়ে যেতে হবে : খুবি উপাচার্য বঙ্গবন্ধুর বাঙালির মুক্তির মহানায়ক হয়ে ওঠার পেছনে প্রেরণা ছিলেন  বঙ্গমাতা : সিটি মেয়র বঙ্গবন্ধু ছিলেন জাতির কান্ডারি ও রাজনীতির কবি : এসডিএফ চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ বাংলাদেশ-ভারত ট্রানজিট চুক্তি বাস্তবায়নে ভারতের ট্রায়াল জাহাজ মোংলা বন্দরে’ খুলনায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকীতে দু:স্থ্যদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন শেখ হাসিনার পায়ের নিচে মাটি নেই-দেশে রিজার্ভ নেই : বিএনপি

শিক্ষার্থীর শারীরিক গঠন ও বিকাশের জন্য খেলাধুলার প্রয়োজন -শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় শনিবার, ১১ মে, ২০১৯
  • ৫৭১ পড়েছেন

তথ্যবিবরণী : শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, পড়াশুনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীর শারীরিক গঠন ও বিকাশের জন্য খেলাধুলার প্রয়োজন। খেলাধুলার মাধ্যমে একটি দেশ বিশ্বের কাছে পরিচিত হয়ে উঠতে পারে। আন্তর্জাতিকভাবে খেলাধুলায় আমাদের ছেলেমেয়েরা সুনামের সাথে কৃতিত্ব অর্জন করছে।

তিনি ১১মে (শনিবার) বিকালে খুলনার দৌলতপুর সরকারি বিএল কলেজ আন্ত:বিভাগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রতি বেশ নজর দিচ্ছে। সকল শিক্ষার্থীকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষকদেরও দায়বদ্ধতা রয়েছে। শিক্ষার্থীকে সঠিক শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছে। সরকার মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, জতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের অসহায় মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কাজ করে গেছেন। বঙ্গবন্ধু ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখে ছিলেন। তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারকে হত্যার মধ্যদিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংসের চেষ্টা করা হয়েছিল। চক্রান্তকারীদের সেই চেষ্টা সফল হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্ম আজ জানতে পারছে।

দৌলতপুর সরকারি বিএল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কেএম আলমগীর হোসেন পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এসময় কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর শরীফ আতিকুজ্জামানসহ অন্যান্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রতিমন্ত্রী বিজয়ী এবং রানার আপ দলের মাঝে ট্রফি বিতরণ করেন।

সন্ধ্যায় প্রতিমন্ত্রী দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির পরিচিত সভা এবং ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu