শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
বিএনপিকে রাজপথে শক্ত হাতে মোকাবেলা করা হবে লেখাপড়ার সাথে খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক চর্চা একান্ত প্রয়োজন -সিটি মেয়র কলাপাড়ায় ২০ কেজি মাংসসহ দুই হরিন শিকারী আটক তেরখাদায় জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মফিজুর রহমানের শীতবস্ত্র বিতরণ শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান: তেরখাদায় এমপি আব্দুস সালাম মূর্শেদী মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক স্থাপনা নির্মাণে প্রধান শিক্ষকের চক্রান্ত ! চট্টগ্রামের হটহাজারীতে মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর মামলার আসামীর কারাগারে মৃত্যু পতাকাসহ পাকিস্তান দলকে দেশে ফেরত পাঠানো উচিত : তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ ভবদহের স্থায়ী জলাবদ্ধতা নিরসনে ভুক্তভোগীদের অবস্থান কর্মসূচি পালন করোনাকালীন এক লাখ ৩৫ হাজার শ্রমিককে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে শ্রম কল্যাণ কেন্দ্র

ফুল ও প্রেম

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় শনিবার, ২ মার্চ, ২০১৯
  • ৮৮৩ পড়েছেন

— ডাঃ সুখেন্দু গায়েন

ফুলের বাগানে হাঁটছি আর ভাবছি,
কত বিচিত্র রং, রুপ ও সৌন্দর্য ফুলে ফুলে!
ক্ষুদ্র বীজ, ছোট ছোট চারা, কালক্রমে তার মাঝে
কত মনোমুগ্ধকর সৌন্দর্য, কত হৃদয়স্পর্শী তার আবেদন !
ফুলের মাঝে হাঁটতে হাঁটতে মনে হল অর্ধাঙ্গিনীকে ডাকি,
যত ফুলের মাঝে ঘুরছি, ততই নস্টালজিয়ায় ভূগছি।
এই, বাগানে ফুলের মাঝে এসো তো একবার, দু’জনে ঘুরি-
ডাকব ভাবছি, এমন সময় স্মরণ হল,
ও তো রান্না ঘরে রান্নার কাজে,
উনুনের আগুনের সাথে এখন তার মিতালি,
শরীর উত্তপ্ত উনুনের আগুনে,
ফুলের সৌন্দর্যের আগুন, উনুনের আগুনে ভস্মীভূত হবে,
ভালোবাসার আহবানে সাড়া দেয়ার সময় এটা নয়,
জলন্ত আগুন মনের মাঝে কখনো প্রেম জাগাতে পারে না,
আগুনের মাঝে দাঁড়ানো ব্যক্তি প্রেমের রঙ্গ রস বোঝে না,
তাকে বিরাগভাজন করে, ভালোবাসার কথা আসে না মুখে।
আমার ফুলের মাঝে অবস্থানকালীন ভালবাসার বাসনা
অগত্যা সুপ্তই থাকলো মনের মাঝে।
অধিকন্তু , আমার এখন পড়ন্ত বিকেল, ফুলবাগান থেকে বেরুলে
মনের রঙ পথ হারাবে কর্তব্যের তাগিদে, বয়স যাবে বেড়ে।
একটা ফুল তুলে বাগানে দাঁড়িয়ে ওর খোঁপায় পরাবো
সেই বয়স ও সাহস দু’টোরই অভাব এখন।
বড় কথা, কেউ হয়ত পাশ থেকে দেখে মুচকি হেসে স্বগতঃ বা
প্রকাশ্যে বলে উঠবে, দেখো তোমরা, বুড়োর কি ভীমরতি !
তাই ইতস্ততঃ
অবশ্য পাশে থাকলে নির্লজ্জের মত হয়ত একটা
পরিয়েই দিতাম খোঁপাতে।

তবে যে যাই বলুক, বাগানের বিচিত্র সব ফুলের সৌন্দর্য
হৃদয়বানকে সাময়িক স্বপ্নের রাজ্যে বিচরণ করাবেই।
সে যে বয়সেরই হোক, নিয়ে যাবে অতীতে মধুর স্মৃতি রোমন্থনে,
মনে হবে, সেদিনটা যদি আবার ফিরিয়ে আনা যেত
ওর খোঁপাতে গুঁজে দিতাম দু’টি লাল গোলাপ,
দু’টি হলিহক গাছের মাঝ বরাবর দাঁড় করিয়ে
কৌতুহলে ছবি তুলতাম বিভিন্ন কোণ থেকে।
লম্বা ও দণ্ডায়মান হলিহক, না আমার প্রিয়া বেশি সুন্দরী
চোখ ভরে বারবার পার্থক্য খুঁজতাম ।
হয়ত ডালিয়া সংক্ষুব্ধ হয়ে মনে মনে বলত,
আমরাও আকর্ষণীয় কম কিসে, প্রেমিক?
আমাদের মাঝে তোমার প্রিয়াকে এনে তাকিয়ে দেখো
সৌন্দর্যের বিস্কোরণ হবে, পলকহীন র’বে তোমার দু’চোখ ।
বাগানের পপি, চন্দ্র মল্লিকা, গাঁদারাও অনুযোগ করতে ভুলবে না,
বলেও বসতে পারে , আমাদেরকেও খোঁপাতে পরাও,
তোমার প্রিয়ার দিকে তাকালে সম্বিত হারাবে!
আমরা ফুলেরা, তোমাদের প্রিয়ারা , সৌন্দর্য বিচারে এক কাতারে বন্ধু।

ফুলের বাগানে হাঁটলে আমার বয়স কমে আসে,
বিশ্ব কবির মত আমারও মনে হতে থাকে,
“কেশে আমার পাক ধরেছে বটে, তাঁহার পানে নজর এত কেন,
পাড়ার যত ছেলে এবং বুড়ো, সবার আমি এক বয়সী জেনো।”
যাদের প্রেম আছে, সৌন্দর্যবোধ আছে, তারা ফুলকে ভালোবাসবেই,
যারা ফুলকে ভালোবাসবে, তাঁদের হৃদয়ে প্রেম থাকবেই।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)
Hwowlljksf788wf-Iu