শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে হেলমেটধারীরা সমাবেশে হামলা চালায় : বিএনপি নেতৃবৃন্দ খুলনায় দুইস্থানে আওয়ামীলীগ-বিএনপির সভা আহবান, পুলিশের নিষেধাজ্ঞা জারি খুলনা জেলা পরিষদের চিত্রাংকন প্রতিযোগীতার সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরন খুলনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবসে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বিএনপির কর্মীসভায় হামলা-ভাংচুর, শতাধিক নেতাকর্মী আহত তোরখাদায় যুবলীগের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন দাকোপে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে রাজাকার অতিথি, মুক্তিযোদ্ধাদের অনুষ্ঠান বর্জন দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার পৃষ্ঠপোষকদের ফাঁসি দিতে হবে আওয়ামীলীগ তেরখাদা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল প্লাস্টিক দূষণ রোধকল্পে টেকসই ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা অপরিহার্য : ড. মুহাম্মদ আলমগীর

সন্ত্রাসী ইয়াকুকে গ্রেফতারের দাবিতে আহত বিএল কলেজছাত্রী খাদিজার সংবাদ সম্মেলন

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় রবিবার, ১২ মে, ২০১৯
  • ৫৭৭ পড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: সন্ত্রাসী ইয়াকুব আলী শরীফকে অবিলম্বে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে খুলনা প্রেস ক্লাবে ১২ মে রবিবার দুপুর ১২টায় সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সন্ত্রাসী হামলায় আহত বিএল কলেজ ছাত্রী খাদিজা আক্তার রিপা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রোকসানা আক্তার।

লিখিত বক্তব্যে বিএল কলেজ ছাত্রী খাদিজা আক্তার রিপা জানান, খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গার খালাসী মাদ্রাসা রোডের ভাড়াটিয়া বিএল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের মাস্টার্স শেষ বর্ষের ছাত্রী খাদিজা আক্তার রিপা দীর্ঘদিন ধরে প্রগতি লাইফ ইনস্যুরেন্সে চাকরি করে আসছেন। চাকুরির পাশাপাশি তিনি সংবাদ মাধ্যমের সাথেও জড়িত আছেন। ইনস্যুরেন্স খোলার কথা বলে আজিজ নামে এক যুবক তাকে গত ৭ মে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে  নগরীর সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকার ব্র্যাক অফিসের পাশে ডেকে নেয়। তিনি সেখানে দাঁড়িয়ে কথা বলা অবস্থায় ইয়াকুব আলী শরীফসহ আরও দু’জন সেখানে হঠাৎ উপস্থিত হন। কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই ইয়াকুব কলেজ ছাত্রী রিপাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে সন্ত্রাসী ইয়াকুব তার বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপতালে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। পরবর্তীতে সোনাডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়। পরে তিনি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি চিকিৎসা নেন।

এ ঘটনায় গত ৮ মে নগরীর সোনাডাঙ্গা থানায় তিনি বাদি হয়ে সোনাডাঙ্গা থানাধীন বাড়ি নং-১৫৪, রোড নং-১২ ১ম ফেইজ, এলাকার মৃত: আব্দুল কাদের শরীফের ছেলে ইয়াকুব আলী শরীফ (৫৮) ও আজিজ (২৫) নামে দুই জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনকে আসামি করে মামলা করেন। যার মামলা নং-৯, তারিখ-৮/৫/১৯ইং।

উক্ত ঘটনায় থানায় মামলা হলেও মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও অজ্ঞাত কারণে তাদের গ্রেফতার করছে না পুলিশ। ভুক্তভোগী বর্তমানে চরম আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ

© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)

Hwowlljksf788wf-Iu