ঢাকা ০৭:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পাইকগাছায় মাদক দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :
পাইকগাছায় প্রতিপক্ষ এক যুবককে মাদক দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে মাদক মামলার আসামী হয়ে নিজেই ফেঁসে গেছেন লুৎফর রহমান নামে এক ব্যক্তি।

ওসি এমদাদুল হকের দুরদর্শিতার কারণে মিথ্যা মাদক মামলা থেকে রক্ষা পান একই এলাকার যুবক বাবু মোড়ল। থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কপিলমুনি গ্রামের মৃত নিজাম গাজীর ছেলে লুৎফর রহমান (৬০) পূর্ব থেকে গাঁজা বিক্রি করে আসছিল। গাঁজা সহ একাধিকবার সে আটক হয়। এ কারণে প্রতিবেশী কবির মোড়লের ছেলে করিমন চালক বাবু মোড়লের (২২)-এর উপর তার সন্দেহ হয় এবং মাদক দিয়ে বাবুকে ফাঁসানোর পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী লুৎফর বুধবার বাবুর বসত বাড়ীর বারান্দার পাটখড়ির মধ্যে গাঁজা লুকিয়ে রেখে থানাপুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাবুকে আটক করে। পরে ওসির দুরদর্শিতার কারণে প্রমাণিত হয় বাবুকে ফাঁসাতেই তার বাড়ীতে মাদক রেখে থানাপুলিশকে খবর দেয় লুৎফর।

পরবর্তীতে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়। এর আগেও লুৎফরের বিরুদ্ধে থানায় দুটি মাদক মামলা রয়েছে এবং যাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয় সেই বাবুর বিরুদ্ধে কোথাও কোন অভিযোগ নাই বলে ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান।

Tag :
About Author Information

বাংলার দিনকাল

Editor and publisher

পাইকগাছায় মাদক দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন

প্রকাশিত সময় ০৭:৩১:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০১৯

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :
পাইকগাছায় প্রতিপক্ষ এক যুবককে মাদক দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে মাদক মামলার আসামী হয়ে নিজেই ফেঁসে গেছেন লুৎফর রহমান নামে এক ব্যক্তি।

ওসি এমদাদুল হকের দুরদর্শিতার কারণে মিথ্যা মাদক মামলা থেকে রক্ষা পান একই এলাকার যুবক বাবু মোড়ল। থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কপিলমুনি গ্রামের মৃত নিজাম গাজীর ছেলে লুৎফর রহমান (৬০) পূর্ব থেকে গাঁজা বিক্রি করে আসছিল। গাঁজা সহ একাধিকবার সে আটক হয়। এ কারণে প্রতিবেশী কবির মোড়লের ছেলে করিমন চালক বাবু মোড়লের (২২)-এর উপর তার সন্দেহ হয় এবং মাদক দিয়ে বাবুকে ফাঁসানোর পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী লুৎফর বুধবার বাবুর বসত বাড়ীর বারান্দার পাটখড়ির মধ্যে গাঁজা লুকিয়ে রেখে থানাপুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাবুকে আটক করে। পরে ওসির দুরদর্শিতার কারণে প্রমাণিত হয় বাবুকে ফাঁসাতেই তার বাড়ীতে মাদক রেখে থানাপুলিশকে খবর দেয় লুৎফর।

পরবর্তীতে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়। এর আগেও লুৎফরের বিরুদ্ধে থানায় দুটি মাদক মামলা রয়েছে এবং যাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয় সেই বাবুর বিরুদ্ধে কোথাও কোন অভিযোগ নাই বলে ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান।