ঢাকা ০৮:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের বিষয়ে কঠোর হতে হবে — আইনমন্ত্রী

তথ্যবিবরণী :
সামাজিক পরিস্থিতির কথা বিবেচনায় নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিরা যেন উচ্চ আদালত থেকে জামিন না পায় সে বিষয়ে সবাইকে মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

১০ জুলাই রাজধানীর নিবন্ধন অধিদফতর প্রাঙ্গণে জেলা ও দায়রা জজ এবং সমমর্যাদার বিচারকদের নতুন গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এ আহবান জানান আইনমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা নুসরাতের মামলা দেখছেন এবং আমি আপনাদেরকে আশ্বস্ত করতে পারি এ ধরনের মামলার ক্ষেত্রে পুলিশ প্রতিবেদন (অভিযোগ পত্র) পাওয়ার পর দ্রুততার সাথে সব আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে বিচার কাজ সম্পন্ন হবে’।

অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সুশাসনের ব্যাপারে দৃঢ় অবস্থান নিয়েছে। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় এবং বাংলাদেশের সাধারণ জনগণ যাতে বিচার পায় এবং সেখানে বিচারকরা যাতে নির্বিঘ্নে সেবা দিতে পারেন সেজন্য সরকার অনেকগুলো পদক্ষেপ নিয়েছে। অবকাঠামো নির্মাণের ফলে বর্তমানে বিচারকদের এজলাস সংকট প্রায় সম্পূর্ণ দূর করা হয়েছে। বিচারকদের লজিস্টিক সাপোর্ট দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বিচারকদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ১১৫টি গাড়ি দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরেও ৬৭টি গাড়ি দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আগে একজন বিচারক রিক্সায় চড়ে চলাচল করতো। এটি তাদের কাজের জন্য হুমকিস্বরূপ ছিল। সেজন্য আমরা বিচারকদের জন্য গাড়ির ব্যবস্থা করেছি। সারা দেশের সকল জেলা জজ ও সমমর্যাদার বিচারকদের গাড়ি দেওয়া হয়েছে। এখন অতিরিক্ত জেলা জজদের গাড়ি দেওয়া হচ্ছে। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বাজেট থেকে ৬২ জন অতিরিক্ত জেলা জজকে গাড়ি দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরেও ৬৭টি গাড়ি ক্রয় করা হবে, যা অবশিষ্ট অতিরিক্ত জেলা জজদের দেওয়া হবে। প্রত্যেক জেলায় বিচারকদের জন্য আলাদা আবাসন ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে যাতে তাদের ভাড়া বাসায় না থাকতে হয়।

গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে যুগ্মসচিব গোলাম সারোয়ার, বিকাশ কুমার সাহা ও হাবিবুর রহমান, সলিসিটর জেসমিন আরা, নিবন্ধন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক খান মোঃ আব্দুল মান্নান-সহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
About Author Information

বাংলার দিনকাল

Editor and publisher
জনপ্রিয় সংবাদ

খুবিতে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন

নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের বিষয়ে কঠোর হতে হবে — আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত সময় ০৭:৪৮:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০১৯

তথ্যবিবরণী :
সামাজিক পরিস্থিতির কথা বিবেচনায় নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিরা যেন উচ্চ আদালত থেকে জামিন না পায় সে বিষয়ে সবাইকে মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

১০ জুলাই রাজধানীর নিবন্ধন অধিদফতর প্রাঙ্গণে জেলা ও দায়রা জজ এবং সমমর্যাদার বিচারকদের নতুন গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এ আহবান জানান আইনমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা নুসরাতের মামলা দেখছেন এবং আমি আপনাদেরকে আশ্বস্ত করতে পারি এ ধরনের মামলার ক্ষেত্রে পুলিশ প্রতিবেদন (অভিযোগ পত্র) পাওয়ার পর দ্রুততার সাথে সব আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে বিচার কাজ সম্পন্ন হবে’।

অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সুশাসনের ব্যাপারে দৃঢ় অবস্থান নিয়েছে। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় এবং বাংলাদেশের সাধারণ জনগণ যাতে বিচার পায় এবং সেখানে বিচারকরা যাতে নির্বিঘ্নে সেবা দিতে পারেন সেজন্য সরকার অনেকগুলো পদক্ষেপ নিয়েছে। অবকাঠামো নির্মাণের ফলে বর্তমানে বিচারকদের এজলাস সংকট প্রায় সম্পূর্ণ দূর করা হয়েছে। বিচারকদের লজিস্টিক সাপোর্ট দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বিচারকদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ১১৫টি গাড়ি দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরেও ৬৭টি গাড়ি দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আগে একজন বিচারক রিক্সায় চড়ে চলাচল করতো। এটি তাদের কাজের জন্য হুমকিস্বরূপ ছিল। সেজন্য আমরা বিচারকদের জন্য গাড়ির ব্যবস্থা করেছি। সারা দেশের সকল জেলা জজ ও সমমর্যাদার বিচারকদের গাড়ি দেওয়া হয়েছে। এখন অতিরিক্ত জেলা জজদের গাড়ি দেওয়া হচ্ছে। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে বাজেট থেকে ৬২ জন অতিরিক্ত জেলা জজকে গাড়ি দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরেও ৬৭টি গাড়ি ক্রয় করা হবে, যা অবশিষ্ট অতিরিক্ত জেলা জজদের দেওয়া হবে। প্রত্যেক জেলায় বিচারকদের জন্য আলাদা আবাসন ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে যাতে তাদের ভাড়া বাসায় না থাকতে হয়।

গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে যুগ্মসচিব গোলাম সারোয়ার, বিকাশ কুমার সাহা ও হাবিবুর রহমান, সলিসিটর জেসমিন আরা, নিবন্ধন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক খান মোঃ আব্দুল মান্নান-সহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।