দাকোপে আন্তঃস্কুল ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ আহত-১

599
Exif_JPEG_420

রাসেল কাজাী, চালনা পৌর প্রতিনিধিঃ

দাকোপ উপজেলার দাকোপ সাহেবের আবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ। সংঘর্ষে কালিনগর জিসি মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর মেধাবী ছাএ ফুটবল খেলোয়ার সুজয় বাছাড় মারাত্ত্বকভাবে আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অপ্রীতিকর মারপিটের প্রতিকার চেয়ে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তার নিকট কালিনগর জিসি মাধ্যমিক বিদ্যলয়ের দেওয়া লিখিত অভিযোগ সুএে জানা যায়, দাকোপ উপজেলার ৪২ টি বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা নিয়ে ৪৮তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ফুটবল প্রতিযোগিতা চলছে। উক্ত প্রতিযোগিতার ভেনু দাকোপ সাহেবের আবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে গত বৃহস্পতিবার বিকালে অনুষ্ঠিত হয় কালিনগর জিসি মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয় বনাম দাকোপ সাহেবের আবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খেলা। খেলার ১৫ মিনিটের মধ্যে কালিনগর জিসি মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২ গোল প্রদান করলে গোলযোগের সৃষ্টি করেন দাকোপ সাহেবের আবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খেলোয়াররা।

এ সময় প্রতিপক্ষ দলের ১০ নং জার্সি পরিহত খেলোয়ার তাকরিম কিপার সুজয় বাছাড়কে লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ৪/৫ জন খেলোয়ার সুজয়ক বুট দিয়ে লাথি মারতে থাকে এবং বুট দিয়ে গলা চেপে ধরে। অচেতন অবস্থায় সুজয় বাছাড়কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৃহস্পতিবার রাতে শয্যাসায়ী সুজয় বাছাড় বলেন, ভাল খেলার অপরাধে ওরা আমাকে মারধর করে। প্রতিপক্ষের বুটের আঘাতে আমার শরিরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। এ সময় সুজয় বাছাড়ের পিতা মনোরঞ্জন বাছাড় বলেন, ভেনু আয়োজকদের তদারকীর ঘাটতির ফলে অনাকাঙ্খিত এ ঘটনা ঘটে। সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক বিচারের দাবী জানান।

মুঠোফোনে কথা হয় দাকোপ সাহেবের আবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সন্জয় কুমার রায়ের সাথে তিনি বলেন, হঠাৎ করে মাঠে শোরগোলের সৃষ্টি হলে ম্যানেজিং কমিটি ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনা হয়। দু-পক্ষের ধাক্কাধাক্কিতে শিক্ষার্থী (খেলোয়ার) সুজয় বাছাড় হয়তবা পড়ে যেয়ে ব্যাথা পেয়েছে।

মুঠো ফোনে কথা হয় কালিনগর জিসি মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন রায়ের সাথে তিনি বলেন, ঘটনার বিচার চেয়ে উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের হস্থক্ষেপ কামনা করেছি। সবার আগে শিক্ষার্থী সুজয়ের সুস্থ্যতা প্রয়োজন।

দাকোপ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জনাব সোহেল আহম্মেদ মুঠোফোনে বলেন, ঘটনা শুনেছি এবং লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। উক্ত খেলা পরিত্যাক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। সঠিক তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here