বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট জুনে চালু হবে  : হাইকমিশনার প্রনয় ভার্মা অবৈধ সংসদ বাতিল,তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন এবং নতুন নির্বাচন কমিশন করতে হবে : গয়েশ্বর রায় খুলনার কেন্দ্রীয় আর্য ধর্মসভা মন্দির কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মহানগরীর লবনচরা থেকে ০৬টি ককটেলসহ গ্রেফতার-১ গঙ্গা বিলাস ভারত-বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও ইকোট্যুরিজমের সম্ভাবনা উন্মোচন করবে -হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট জুনে চালু হবে : ভারতীয় হাইকমিশনার প্রনয় ভার্মা  অবৈধ সংসদ বাতিল,তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন এবং নতুন নির্বাচন কমিশন করতে হবে : গয়েশ্বর রায় দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরণ বাগেরহাটে অবৈধভাবে মজুদ করা ২০ হাজার মেট্রিক টন চাল জব্দ,  গুদাম সিলগালা-জরিমানা কয়রায় হরিণ ধরার ফাঁদসহ ১টি নৌকা আটক

পাইকগাছায় ঠিকাদার দিয়ে সেতুর টোল আদায়;রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে সরকার

সংবাদদাতার নাম :
  • প্রকাশিত সময় রবিবার, ৭ জুলাই, ২০১৯
  • ৩০৭ পড়েছেন

পাইকগাছা প্রতিনিধিঃ
পাইকগাছার শিববাটী শিবসা সেতু টেন্ডার না হলেও টোল আদায় করছে বর্তমান ঠিকাদার। ফলে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে সরকার বঞ্চিত হচ্ছে।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, পুনঃটেন্ডারে সকল ঠিকাদারদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা গেলে পূর্বের চেয়ে কয়েকগুণ রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করছেন তারা। উল্লেখ্য, পাইকগাছা ও কয়রা সড়কের শিবসা নদীর উপর নির্মিত শিবসা সেতু মামলা জনিত কারণে দীর্ঘদিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ টেন্ডার আহবান না করে বিগত বছর গুলোতে বার্ষিক ২৮ লাখ টাকা ইজারা মূল্য ধার্য্য করে টোল আদায় করে আসছিল।

পথিমধ্যে চলতি বছর কর্তৃপক্ষ ৩ বছর মেয়াদী টেন্ডার আহবান করলে অংশগ্রহণকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ৪৮ লাখ টাকার মূল্য নির্ধারণ করে দরপত্র জমা দেয়। কিন্তু এতে সরকারের নির্ধারিত চাহিদা পূরণ না হওয়ায় পুনঃটেন্ডার আহবান করে। এদিকে একদিকে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হওয়ায় অপর দিকে ৩০ জুন পূর্বের মেয়াদ শেষ হওয়ায় সড়ক ও জনপথ বিভাগ কর্তৃপক্ষ নিজেরা টোল আদায় না করে পূর্বের হার অনুযায়ী ঠিকাদার মিনারুলকে দিয়ে টোল আদায় অব্যাহত রেখেছেন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান ঠিকাদারকে দিয়ে টোল আদায় করায় সরকারে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে। আবার অনেকেই বলছেন, একই সড়কে পাশ্ববর্তী কয়রার চাঁদআলী ব্রীজ বিগত বছরে নূর এন্টারপ্রাইজ নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ২৮ লাখ টাকায় ইজারা গ্রহণ করে। চলতি ৩ বছর মেয়াদী টেন্ডারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আনার আলী দফাদার এন্টারপ্রাইজ ১ কোটি ২৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার দরপত্র জমা দিলেও কর্তৃপক্ষ সেটা কাঙ্খিত মনে করেন নি। ফলে সেখানে সড়ক ও জনপথ বিভাগ কর্তৃপক্ষ পরবর্তী টেন্ডার না হওয়া পর্যন্ত বর্তমানে নিজেরাই টোল আদায় করছে। একই সড়কে দুটি ব্রীজের টোল দুই নিয়মে আদায় করায় জনমনে নানা ধরণের প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

অনেকেই বলছেন, কর্তৃপক্ষ যদি চাঁদআলী ব্রীজের টোল নিজেরাই আদায় করতে পারে তাহলে শিববাটী শিবসা সেতুর টোল কেন ঠিকাদারকে দিয়ে আদায় করছে।

এ ব্যাপারে শিবসা সেতুর টোল আদায়কারী ঠিকাদার মিনারুল ইসলাম বলেন, কর্তৃপক্ষ কাকে দিয়ে টোল আদায় করবেন এটা সম্পূর্ণ তাদের ব্যাপার। আমাকে আদায় করতে বলছে, তাই আমি আদায় করছি। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী তাপসী দাস জানান, জনবল সংকটের কারণে পূর্বের ইজারাদারকে দিয়ে টোল আদায় করা হচ্ছে এবং তিনি পূর্বে ধার্যকৃত ইজারা অনুযায়ী রাজস্ব জমা দিচ্ছেন।

সংবাদটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হলো

এ ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved by www.banglardinkal.com (Established in 2017)
Hwowlljksf788wf-Iu