উপকুলীয় জনগোষ্ঠির জলবায়ু পরিবতর্নজনিত অভিযোজন সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রকল্পের কমর্শালা অনুষ্ঠিত

136

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও উপকুলীয় জনগোষ্ঠির বিশেষত নারীদের জলবায়ু পরিবতর্নজনিত লবনাক্ততা মোকাবেলায় অভিযোজন সক্ষমতা বৃদ্ধিকরন প্রকল্পের কমর্শালা অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠিত হয়েছে।বাংলাদেশ সরকারের গ্রীন ক্লাইমেট ফান্ড এবং জাতিসংঘ উন্নয়ন কমর্সূচীর(ইউএনডিপি)সহায়তায় রবিবার নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত জেন্ডার রেসপন্সসিভ ক্লাইমেট এ্যাডাপ্টেশন-জিসিএ প্রকল্পের ওরিয়েন্টেশন ওর্য়াকশপে ভার্চুয়ালে প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা। খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টেশন ওর্য়াকশপে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তার, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক পারভীন আক্তার, খুলনার বিভাগীয় কমিশনার ড.মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার ও ইউএনডিপির জলবায়ু বিশেষজ্ঞ একেএম মামুনুর রশিদ। দিনব্যাপী এ ওরিয়েন্টেশন ওর্য়াকশপে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন, মহিলা ও শিমু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিনিধিবৃন্দ, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, জিসিএ প্রকল্প, জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর, কৃষি, মৎস্য, প্রানীসম্পদ বিভাগের জেলা ও উপজেলা কর্মকর্তাবৃন্দ, কয়রা, দাকোপ ও পাইকগাছা উপজেলা অফিসার, চেয়ারম্যানবৃন্দ, সাংবাদিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কমর্শালায় বক্তারা দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও উপকুলের বিপদাপন্ন জেনগোষ্ঠির জলবায়ু সহনশীল জীবিকা ও পানীয় জলের সমস্যা সমাধানে জিসিএ প্রকল্প একটি মাইল ফলক হিসেবে বিবেচিত হবে। এই প্রকল্পের সুষ্ঠ ও সফল বাস্তবায়নে সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়। সরকারের গ্রীন ক্লাইমেট ফান্ড এবং জাতিসংঘ উন্নয়ন কমর্সূচীর সহায়তার এই প্রকল্পটি খুলনার দাকোপ, পাইকগাছা ও কয়রা এবং সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি ও শ্যামনগরসহ ৫টি উপজেলার ৩৯টি ইউনিয়নের ১০১টি ওয়ার্ডে বিপদাপন্ন জনগোষ্ঠির জলবায়ু সহনশীল জীবিকা ও পানীয়জলের সমাধানের জন্য কাজ করবে। প্রকল্পটি আগামী ৫বছর ধরে বাস্তবায়ন করা হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে এলাকার ৭লাখ ১৯হাজার ২৯২জন মানুষ সরাসরি উপকৃত হবেন। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের নেতৃত্বে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর যৌথভাবে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। ইউএনডিপি এই প্রকল্পের গুনগত মান নিয়ন্ত্রন করার দায়িত্ব পালন করবে বলে কমর্শালায় জানানো হয়। ##

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here